ই-শ্রম কার্ড বানিয়ে থাকলে মানতে হবে এই নিয়মগুলি নাহলে বাতিল হয়ে যাবে কার্ড

এবার কেন্দ্রীয় সরকারের আরো নতুন নতুন প্রকল্প সামনে এনেছে যাতে উপকৃত হতে পারেন শ্রমিকরাও। সমগ্র দেশবাসীর কথাই যে কেন্দ্রীয় সরকার চিন্তাভাবনা করেন তা এই প্রকল্পগুলিই প্রমাণ দেয়।সেই রকমই একটি প্রকল্প হল ই শ্রম কার্ড, যা পাবার অধিকার আছে একমাত্র অসংগঠিত শ্রমিকদেরই।

১৬ থেকে ৫৬ বছর বয়সীরা এই পোর্টালের নাম নথিভুক্ত করতে পারেন, এই নাম নথিভুক্ত করার সময় শ্রমিকদের নাম ডেটা পরিচয় নথিভূক্ত করতে হবে, তবেই এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। এই প্রকল্পটি শুরু হয়েছিল ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। ইতিমধ্যেই তাতে প্রায় ২০ কোটি লোকের নাম নথিভুক্ত হয়েছে।

অসংগঠিত শ্রমিকদের এই সুবিধা দেওয়া হবে, যে কারণে নথিভূক্তের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার একটি ডাটাবেস তৈরী করতে চাইছে যে ডেটাবেসের মাধ্যমে পরবর্তীকালে শ্রমিকরা নানান সুবিধা পেতে পারে। তবে এই নাম নথিভুক্ত করার সময় কিছু নিয়ম আছে যেগুলিতে সঠিক তথ্য না দিলে সেই কার্ড বাতিল হয়ে যেতে পারে। ই শ্রম কার্ডটিতে একটি ইউনিভার্সেল অ্যাকাউন্ট নাম্বার থাকবে , যে কার্ডের আওতায় থাকবেন কৃষক-শ্রমিক গাড়ি চালকরা।

কোনভাবে কোনো অসঙ্গতি দেখা গেলে সাথে সাথেই বাতিল হবে সে কার্ড এবং শুধু বাতিল নয় তার উপর জালিয়াতির অভিযোগ উঠতে পারে। কোন ব্যক্তি তার ভুল তথ্য দিয়ে থাকলে কোনোভাবেই ই শ্রম কার্ড পাবেন না, এমনকি তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থাও নেয়া হবে। যে সমস্ত ব্যক্তিরা ইপিএফ ওর সদস্য নন, এমনকি কোন ভাড়া বাড়িতে থাকেন তাঁকেও অসংগঠিত শ্রমিক হিসেবে ধরা হবে এবং তারাও এই প্রকল্পের আওতায় পড়বে।