বর্তমানে জরুরি কাজে বাইরে বেরোতে প্রয়োজন হচ্ছে ই-পাস-এর, দেখুন কীভাবে করবেন আবেদন

16 মে থেকে 30 মে পর্যন্ত রাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করেছে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।  রাজ্যে করোনা  মহামারীর আইন অমান্য করার জন্য যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে নবান্ন।  এই পরিস্থিতিতে কেবলমাত্র যারা জরুরী পরিষেবা এবং অনলাইন ডেলিভারি সঙ্গে যুক্ত শুধুমাত্র তারাই বাইরে যেতে পারবেন।  তার জন্য ই পাস চালু করেছে কলকাতা পুলিশ। ইপাস পাওয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন করা যাবে।

 

তার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট কিছু নথিপত্র জমা দিতে হবে কলকাতা পুলিশের তরফে বলা হয়েছে, অনলাইন ডেলিভারি সঙ্গে যুক্ত এবং জরুরী পরিষেবা সংযুক্ত গাড়িগুলি যাতায়াতের জন্য ই পাস চালু করা হয়েছে। অনলাইনে একটি ফর্ম ফিলাপ করতে হবে। তাহলে আপনার ইমেইল আইডিতে একটি ই পাস পাঠানো হবে।যাতায়াতের সময় সেই ই পাস গাড়িতে লাগাতে হবে।

এই ই পাসের আবেদন করার জন্য  coronapass.kolkatapolice.org লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে৷ একটি পেজ খুলবে।  নীচে  ‘I Agree’ লেখা বক্স এর পাশে ক্লিক করতে হবে। তাহলে নতুন একটি পেজ খুলবে। তাতে ব্যক্তির জন্য হলে  ‘Individual’ বা সংস্থার জন্য হলে  ‘Organization’ এ  টিক দিতে হবে৷

এরপর  নিজের নাম, গন্তব্য স্থানের ঠিকানা, গাড়ির বিবরণ এবং কোন প্রয়োজনে  যাচ্ছেন – সেগুলো জানাতে হবে৷

‘I shall not operate/commute in the containment zones’ চেকবক্স টিক দিন। নিজের সচিত্র পরিচয়পত্র যেমন আধার কার্ড বা ভোটার কার্ড  এবং প্রয়োজনীয় নথি আপলোড করতে হবে৷

সাবমিট করলে ই মেলে আবেদনকারীকে ইপাস পাঠিয়ে দেবে কলকাতা পুলিশ। এরপর ই পাস ডাউনলোড করে নেবেন৷  গাড়ির স্ক্রিনে সেই পাস লাগিয়ে নিতে হবে তাহলে  গাড়িটিকে যেতে দেবেন কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা।

এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে, যে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য পাসটি ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, শুধুমাত্র সেই সময়ই বাইরে থাকার জন্য ছাড় পাবেন আবেদনকারী।

নব্বান্ন থেকে জানানো হয়েছে, জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত দফতরগুলি ছাড়া, সমস্ত সরকারি, বেসরকারি দফতর,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  বন্ধ থাকবে৷ লোকাল ট্রেন আগেই  বন্ধ ছিল,  এ বার বাস,  মেট্রো,এবং ফেরি চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ।  ট্যাক্সি এবং অটো চলাচল করবে জরুরি প্রয়োজনে৷ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাত ৯টা থেকে পরেরদিন ভোর ৫টা পর্যন্ত বাইরে বেরনো  যাবে না৷ এই সময়  ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল করবে না । কেবলমাত্র দিনের বেলায় নিজের গাড়ি নিয়ে টিকা নিতে যেতে পারবেন মানুষ।