মাত্র ৪ হাজার টাকা দিয়ে আজই ভারতীয় রেলের সাথে শুরু করুন ব্যবসা, মাস গেলে আয় হবে ৫০ হাজার টাকা

দেশে প্রার্থীর সংখ্যা লক্ষ লক্ষ হলেও চাকরির অবস্থা একেবারেই ভালো নয়, তা আমরা সকলেই জানি। চাকরির অবস্থা ভালো নয় বলেই চাকরি নিয়ে এত দুর্নীতি সামনে উঠে আসছে।এমতাবস্থায় আপনি যদি চাকরি হারিয়ে থাকেন অথবা আপনি যদি চাকরি প্রার্থী হন তাহলে এই প্রতিবেদন আপনার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। আজ এমন একটি ব্যবসার কথা বলব যা সহজে আপনাকে অর্থ উপার্জন করতে সাহায্য করবে।

আমরা সকলেই জানি ভারতীয় রেল বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা। প্রতিনিয়ত যাত্রীদের সুবিধার্থে নতুন নতুন নিয়ম তৈরি করছে ভারতীয় রেল। তবে ভারতীয় রেল শুধুমাত্র যাত্রীদের খেয়াল রাখেন তা নয়, সাথে দেশের যুবসমাজকে বিপুল আয়ের সুযোগ সুবিধা করে দেয়। কিন্তু কিভাবে আপনি ভারতীয় রেলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে নিজের আয় বাড়াবেন জেনে নেওয়া যাক।

দেশের বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য আইআরসিটিসি আয়ের নতুন একটি সুযোগ এনে দিয়েছে। এবার আপনি রেলের টিকিট বুক করে বাড়িতে বসে উপার্জন করতে পারবেন বিরাট অংকের টাকা। তবে তার জন্য আপনাকে প্রথমে আইআরসিটিসির এজেন্ট হতে হবে। এই এজেন্ট হবার জন্য কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে আপনাকে। প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেই আপনার উপার্জন পদ্ধতি শুরু হয়ে যাবে।

বর্তমানে অনেকেই অনলাইনে টিকিট কাটতে পছন্দ করেন। ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে না দাঁড়িয়ে অনলাইনে সেকেন্ডের মধ্যে টিকিট কাটা যায়। তবে এক্ষেত্রে অনেকেই এজেন্টের সাহায্য নিয়ে থাকেন। আর আপনি সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে নিজের ব্যবসা দাঁড় করাতে পারেন।

কীভাবে এজেন্ট হবেন আপনি চলুন জেনে নেওয়া যাক::–
প্রথমেই আপনাকে রেলের নিজস্ব ওয়েবসাইটে যেতে হবে। সেখানে আপনার কাছে একটি ফর্ম আসবে যেদিকে পূরণ করতে হবে আপনাকে। irctc সমস্ত তথ্য খুটিয়ে যাচাই করবে প্রথমে, তারপর আপনাকে এজেন্ট হবার অনুমোদন দেবে। সে ক্ষেত্রে রেলকে কিছু টাকা দিতে হবে।

কিভাবে উপার্জন করবেন আপনি??
সমস্ত কাগজ ফিল আপ করলে লাইসেন্স পাবার জন্য রেলের কাছে এক বছরের জন্য ৩৯৯৯ টাকা জমা করতে হবে আপনাকে। দীর্ঘমেয়াদে দু বছরের জন্য নিলে নিতে হবে ৬৯৯৯ টাকা। তবে এই টাকা খুব সহজে উঠে আসবে আপনার। সাথে আরো বেশি টাকা রোজগার করতে পারবেন প্রতিমাসে। এছাড়া প্রথম ১০০ টি টিকিট বুকিং করার জন্য আপনাকে টিকিট প্রতি ১০ টাকা দিতে হবে রেলকে।