মাত্র দশ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা, মাসিক আয় হবে দু লক্ষ টাকারও বেশি

করোনা ভাইরাসকে দূর করার জন্য বিশ্বের প্রতি দেশের ন্যায় ভারতবর্ষ লকডাউনের পথে হেঁটে ছিল। আর লকডাউনে বহু মানুষের চাকরি চলে যায়। অনেকেই আবার চাকরি হারানোর পড়ে ব্যবসা করে রোজগার করার আশায় ব্যবসাতে নেমেছেন। আবার এক্ষেত্রে যদি আপনার একটু জমি থাকে সেই জমিতে ভালো কৃষি কাজ করেও মোটা টাকা আয় করা যেতে পারে। প্রথমে আপনাকে 10 থেকে 15 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করলে প্রতি মাসে দুই থেকে তিন লক্ষ টাকা রোজগার হতে পারে এই ব্যবসা করে।

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের শহর এই সডহজন চাষ হয় আর এই সহজন চাষে প্রচুর পরিমাণে মাল্টি ভিটামিন প্রোটিন অ্যামাইনো এসিড থাকে। কয়েক বছর থেকে আমাদের দেশে হেলথ সাপ্লেমেন্ট হিসেবে এর চাহিদা বেশ ভালই বেরেছে। অনেক স্টার্টআপ সহজনকে প্রসেসিং করে নতুন হেলদি প্রোডাক্ট তৈরি করা হয়েছে। মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা প্রমোদ পানসরে এই ব্যবসা করেন। ২ বছরে সহজন পদ্ধতিতে পাতা ও হলুদ থেকে চকোলেট, চিক্কি, খাখরা ও স্ন্যাকস বানাচ্ছেন৷ সারা দেশে এর মার্কেটিং করছেন৷ এখন প্রতি মাসে তাঁর আয় ২ থেকে ৩ লক্ষ টাকা৷

একটি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করা হয় যে প্রমোদ এই ব্যবসায় প্রথমে 15 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। এছাড়াও তিনি একটি অফিস খুলে ছিলেন। ফুড লাইসেন্স এবং জরুরী ডকুমেন্টস জোগাড় করে ব্যবসায় নেমে পড়েন। নিজর দিয়েছিলেন স্বাস্থ্যকর খাবারের উপর। বর্তমান বাজারে এই ধরনের প্রোডাক্টের প্রচুর চাহিদা তাই এই ব্যবসা দ্রুত হারে বৃদ্ধি পায়।

প্রমোদ এই প্রোডাক্টের বিক্রি শুরু করেন নিজের প্রোডাক্ট দিয়ে। তারপর তিনি রিটেলারদের এবং হোলসেলারদের তাঁর প্রোডাক্টগুলি দিতে থাকেন। এর পাশাপাশি তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই প্রোডাক্টের ছবি তুলে বিক্রির ব্যবস্থা করেন।