মাত্র ৫০০০ টাকা বিনিয়োগ করে আজই শুরু করুন গিফট বক্সের ব্যবসা, হয়ে যাবেন লাখপতি রইল ব্যবসার খুঁটিনাটি

বর্তমানে আমরা চাকরির থেকে অনেক বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছি ব্যবসার দিকে। যে কোন ব্যবসা আমাদের লাভজনক জীবন এনে দিতে পারে। তবে বেশি বিনিয়োগ করার সাধ্য অনেকেরই থাকে না। আবার অনেকেই মনে করেন বেশি বিনিয়োগ করে ফেললে যদি ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয় তাহলে অদূর ভবিষ্যতে কি হবে। তাই আজকে আপনাদের জানাব কম খরচে একটি ব্যবসার কথা যা অনায়াসে আপনি করতে পারবেন কোন চিন্তা ছাড়াই।

এই ব্যবসাটি বাড়ি থেকে করা যায় এবং বাড়ির মহিলারা এই ব্যবসাটি অনায়াসে করতে পারেন। আপনি পার্ট টাইম অথবা ফুল টাইম হিসাবে এই ব্যবসাটি পরিচালনা করতে পারেন। সর্বক্ষেত্রে আপনি লাভজনক অংকের মুখ দেখতে পাবেন। ব্যবসাটি হলো গিফট বাস্কেট মেকিং বিজনেস।

বর্তমানে অনেকেই কোন বিশেষ উপলক্ষে উপহারের ঝুড়ি দেওয়া পছন্দ করে থাকেন। জন্মদিন হউক অথবা ভ্যালেন্টাইন ডে, অ্যানিভার্সারি হোক অথবা অন্য কোন স্পেশাল দিন, একটি গিফট বাস্কেট তৈরি করে উপহার দিতে এখন পছন্দ করেন অনেকে। তাই এই গিফট বাস্কেটের চাহিদা আমাদের ভারতবর্ষে অপরিসীম। আপনি যদি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন তাহলে অল্প বিনিয়োগ করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন আপনি।

এই ঝুড়িটি আপনি বাড়িতেই তৈরি করতে পারেন অথবা বাজার থেকে কিনে আনতে পারেন। উপহারের ঝুড়ি কিভাবে সাজাতে হবে তার ধারণা আপনি ইন্টারনেট থেকে পেয়ে যাবেন। স্পেশাল দিন অনুযায়ী আপনি উপহারের ঝুড়ি সাজিয়ে ফেলতে পারলেই কেল্লা ফতে। এই নতুন ট্রেন্ড যদি আরো বেশ কয়েক বছর এই ভাবেই চলে তাহলে আপনাকে বড়লোক হতে কে আটকায়।

এবার জেনে নেওয়া যাক এই ঝুড়ি তৈরি করতে কি কি কাজে লাগে। আপনি যদি বাড়িতে এই ঝুড়ি তৈরি করতে চান তাহলে আপনাকে ন্যূনতম কিছু জিনিস বাজার থেকে কিনে আনতে হবে। ঝুড়ি তৈরি করার জন্য আপনাকে একটি মোড়ানো কাগজ, কারুকার্যের সামগ্রী, গহনা টুকরো, প্যাকেজিং উপকরণ, তার, মার্কার কলম, স্টেপলার, আঠা ও রঙের উপকরণ।

এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবে ৫০০০ টাকা থেকে ৮০০০টাকা। এই অর্থের মধ্যে আপনি প্রয়োজনীয় জিনিস কিনে ফেলতে পারবেন। প্রথমে একটি ঝুড়ি তৈরি করে নমুনা হিসেবে ক্রেতাদের দেখান। পছন্দ হলে এমন আরও অনেক ঝুড়ি তৈরি করুন। দোকান অথবা বড় ডিলার যদি আপনি পেয়ে যান তাহলে তো কথাই নেই। এছাড়া ইন্টারনেটে ছবি আপলোড করেও আপনি বিক্রি করতে পারেন আপনার ঝুড়ি। তবে প্রথম দিকে বাস্কেটের দাম একটু কম রাখবেন যাতে গ্রাহক আকর্ষিত হয়ে আপনার ঝুড়ি ক্রয় করেন।