বাঘ সংরক্ষণের দিক থেকে বিশ্বের সেরা ভারতের নাম, পৃথিবীতে যে পরিমাণ মোট বাঘ রয়েছে তার 70% রয়েছে এই দেশেই..

আজ থেকে 15 বছর আগে বাঘের সংখ্যা যেভাবে দেশজুড়ে কমতে শুরু করেছিল তাতে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছিল পরিবেশবিদদের। আর এই বিষয়ে পরিবেশবিদরা গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। তবে আজ বিশ্ব বাঘ দিবসে ভারত সরকারের তরফ থেকে 2020 এর 29 শে জুলাই যে পরিসংখ্যান সামনে আসলো তা দেখে অনেকেই বলছেন গত একযুগে আমূল পরিবর্তন হয়েছে এই পরিস্থিতিতে। এক্ষেত্রে শুধু যে বাঘের সংখ্যা দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে তাই নয় হিসেব অনুযায়ী দেখতে পাওয়া যাচ্ছে বিশ্বে যে পরিমাণে বাঘের সংখ্যা রয়েছে তার 70% রয়েছে ভারতের মধ্যেই।

এই মুহূর্তে দেশের 50 টি ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্পে বাঘের সংখ্যা রয়েছে 2,967 টি। আর এই পরিসংখ্যান অত্যন্ত উৎসাহজনক বিশেষজ্ঞদের কাছে। পরিসংখ্যানে জানা যাচ্ছে 2006 থেকে 2018 সাল পর্যন্ত ভারতে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে 6 শতাংশ। যেখানে এর আগেও 1973 সালে দেশে ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্প ছিল 9 টি সেটি এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে পঞ্চাশের কাছাকাছি। গত 2010 সালে সেন্ট পিটার্সবার্গ শহরে অনুষ্ঠিত টাইগার সামিট থেকে 29 শে জুলাই দিনটিকে বিশ্ব বাঘ দিবস হিসাবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

যেখানে পরিবেশবিদ ও বন্যপ্রাণী গবেষকরা বাঘের সংখ্যা কমে যাওয়ার মানে জঙ্গলের জীব বৈচিত্রের মধ্যে ব্যাপক বদল হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। তাছাড়া এইভাবে সংখ্যা কমে যাওয়ার ফলে এটি সামগ্রিকভাবে পরিবেশের ইকোসিস্টেমের ওপর প্রভাব ফেলবে। আর সেদিক থেকে বাঘের সংখ্যা ভারতের বেড়েছে তা অত্যন্ত ইতিবাচক হিসেবে দেখা হচ্ছে। যেখানে এই বিষয়ে একটি সেমিনারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর জানিয়েছিলেন, বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি বুঝিয়ে দিয়েছে দেশের প্রকৃতির ভারসাম্য ঠিক আছে কারণ ভারতের মতো দেশে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের প্রধান সমস্যা হয়ে থাকে জমি।

তবে তা সত্ত্বেও এই কাজে কোন ছেদ পড়েনি। আর রিপোর্ট অনুযায়ী জানতে পারা গেছে এই দেশে এই মুহূর্তে রাজ্য হিসেবে সবচেয়ে বেশি বাঘ সংরক্ষণের মধ্যে নাম রয়েছে মধ্যপ্রদেশ, কর্ণাটক, উত্তরাখণ্ড, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ুর। তবে এর পাশাপাশি জাভড়েকর আরো বলেছেন, শুধু বাঘের দিকে তাকালেই হবে না। অন্য প্রাণীদের বিষয়টিও গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে আগামী দিনেও। আর এই নিয়ে 600 পাতার একটি রিপোর্ট ও তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভারতে এই মুহূর্তে রয়েছে 30 হাজার হাতি, 3 হাজার একশৃঙ্গ গন্ডার, ও 500 টির বেশি সিংহও।

Related Articles

Back to top button