দেশনতুন খবরবিশেষ

নেই অ্যাম্বুলেন্স, নিরুপায় হয়ে মৃত সন্তানকে আঁকড়ে ধরে 48 কিলোমিটার পথ ছুটলো শিশুর মা..

সারা দেশজুড়ে চলছে লকডাউন ফলে কোন যানবাহন পাওয়া যাচ্ছে না বর্তমানে। তবে জরুরী পরিষেবা চালু থাকার কথা বলা হলেও সময় মতো পাওয়া গেল না অ্যাম্বুলেন্স। সেই ছোট্ট ছেলেটিকে নিয়ে দৌড়ে বেড়ালো তার পরিবার তবুও খুঁজে পাওয়া গেল না অ্যাম্বুলেন্স। ঘটনাটি ঘটে শুক্রবারে বিহারের জাহানাবাদের একটি সরকারি হাসপাতলে। চিকিৎসার অভাবে মৃত্যু হয় ওই ছোট্ট শিশুটির।রাজধানী পাটনা থেকে জেহানাবাদ এর দূরত্ব 84 কিমি।

ওই শিশুর বাবা-মা জানিয়েছেন, অ্যাম্বুলেন্স না পাওয়ার অভাবেই তার ছেলের মৃত্যু হয়েছে। ওই মৃত শিশুর বাবা গিরেজ কুমার জানিয়েছেন, তাদের তিন বছরের পুত্র সন্তান গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিল। শাহাপুর গ্রামের স্থানীয় চিকিৎসক তাদের বলেন যে, শিশুটির অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। এরপর জেহানাবাদ সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ওই অসুস্থ শিশুটিকে। সেখান থেকেও শিশুটিকে রেফার করা হয় পটনা মেডিকেল কলেজে। কিন্তু সেখানে নিয়ে যাওয়ার জন্য তাদের অ্যাম্বুলেন্স এর সাহায্য নিতে হতো।

সেই অ্যাম্বুলেন্স খুঁজতে গিয়েই বিপত্তি ঘটে যায়। লকডাউন এর প্রভাবে ওই পরিবার অ্যাম্বুলেন্স জোগাড় করতে পারেনি আর তার ফলস্বরূপ খোয়াতে হয় তাদের ওই ছোট্ট সন্তানটিকে। ওই ছোট্ট শিশুটির পরিবার অভিযোগ করেছেন যে, এ নিয়ে হাসপাতাল তাদেরকে কোন সাহায্য করেনি।এই দুঃখের ভিডিওটি ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায় যেখানে দেখা যাচ্ছে ছোট্ট ছেলেটির মৃতদেহ জড়িয়ে ধরে কাঁদছেন অসহায় মা। পাশে বাবাও রয়েছেন। তাকে কোনো সাহায্য লাগবে কিনা জিজ্ঞেস করলেন এক ব্যক্তি। এরপর অসহায় বাবা উত্তর দেন,”আর অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে আমরা কী করব।” সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরে একেবারে নড়েচড়ে বসে জেলা প্রশাসন। ওই হাসপাতালের এক ম্যানেজারকে এরপর বরখাস্ত করা হয়। এমন কী কয়েকজন চিকিৎসককেও শো-কজ করা হয়।

Related Articles

Back to top button