গোটা পৃথিবীর কুয়ো গোলাকার হওয়ার পেছনে রয়েছে এক বৈজ্ঞানিক কারণ, জেনে চমকে যাবেন আপনিও

আপনারা সবাই নিশ্চয়ই কোনো না কোনো সময গ্রামে গেছেন এবং সেখানে নিশ্চয়ই কূপ দেখেছেন। যদি না দেখে থাকেন, তাহলে আপনি অবশ্যই কোনো না কোনো সিনেমাতে কূপ দেখেছেন। আপনিও হয়তো কূপ থেকে জল তুলেছেন, কিন্তু কখনো কি ভেবে দেখেছেন কেন কূপের আকৃতি গোলাকার হয়? দেশের যেকোন প্রান্তে গেলে দেখতে পাবেন কূপের আকৃতি গোলাকার।

আপনি হয়তো খুব কমই বর্গাকার আকৃতির কূপ দেখে থাকবেন, তবে বেশিরভাগ কূপই গোলাকার আকৃতির হয়। আজ আমরা আপনাকে কূপের আকৃতির পিছনের কারণটি বলব। কূপের আকৃতি এমনি এমনি গোল হয়না, এর পেছনেও লুকিয়ে আছে বিজ্ঞান। বৈজ্ঞানিক কারণে কূপকে বৃত্তাকার করা হয়, যার অনেক সুবিধা রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, গোলাকার কূপগুলি অন্যান্য কূপের তুলনায় অনেক বেশি শক্তিশালী।

একটি গোলাকার কূপের কোনা নেই, যার কারণে কূপের চারদিকে চাপ সমান থাকে। অন্যদিকে, কূপটি যদি বর্গাকার আকারে তৈরি হয়, তবে কেবলমাত্র চার কোনায় চাপ প্রয়োগ করা হবে। যার কারণে কূপটি দীর্ঘ সময় চলতে পারবে না এবং একই সাথে এটির ধসে পড়ার ঝুঁকিও অনেক বেড়ে যাবে। এমন পরিস্থিতিতে, কূপটিকে দীর্ঘ সময় ধরে চালানোর জন্য এটিকে বৃত্তাকার করা হয়।

আমরা যখন কোনো তরল সঞ্চয় করি, তখন তার ভিতরের চাপ তার দেয়ালে পড়ে, যেখানে এটি সংরক্ষণ করা হয়। এমন পরিস্থিতিতে গোল কূপ বর্গাকার কূপের চেয়ে বেশি চাপ সহ্য করতে সক্ষম। গোলাকার কূপ তৈরি করার ফলে মাটি ধসে যাওয়ার সুযোগ অনেক কমে যায়। গোকালার কূপ তৈরি করা খুব সহজ, কারণ কূপটি খনন করে তৈরি করা হয়। আপনি যদি গোলাকার আকারে কূপ খনন করেন, তবে এটি তৈরি করতে খুব সহজ হয়, অবে যদি আমরা একটি বর্গাকার আকৃতির কূপ খননের কথা বলি, তবে এটি খনন করা খুব কঠিন হয়ে যায়, যার কারণে কূপটি কেবল বৃত্তাকার আকারে খনন করা হয়।