সত্যিই কী সরস্বতী পূজার আগে কুল খেতে নেই? কী বলছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা

বাচ্চাদের সব সময় বলা হয় সরস্বতী পূজার আগে কুল খাবেনা। তাহলে তোমার বিদ্যা পালিয়ে যাবে। বলা হয়, সরস্বতী পূজার আগে কুল খেলে নাকি দেবী সরস্বতী বিদ্যার্থীদের উপর রাগ করেন৷ মুখস্থ করা পড়াও বিদ্যার্থীরা ভুলে যায়। এমনকি এও বলা হয়েছে পরীক্ষায় আসা সঠিক উত্তর নাকি ভুল করিয়ে দেন মা সরস্বতী।

এই বিশ্বাস বড়দের মুখে শুনে ছোটরাও কিছুটা ভয় পায়৷ ইচ্ছে হলেও কুল খেতে পারে না। কিন্তু সত্যিই কি এর পিছনে কোন বৈজ্ঞানিক কারণ আছে? নাকি নিছক অন্ধবিশ্বাস?

সরস্বতীর মূল প্রসাদ কুল। শীতকালীন ফল কুল। সরস্বতী পুজোর প্রসাদে নারকেল কুল ও টোপা কুল দেওয়া হয়। বলা হয়, গাছের প্রথম ফলটা দেওয়া হবে সরবস্বতীকে। এতেই দেবী তুষ্ট হবেন। বিদ্যা বুদ্ধি দান করবেন। তাই দেবী সরস্বতীকে প্রথম কুল উৎসর্গ করার পরই ছাত্র ছাত্রীরা খেতে পারবেন।

আজকের রাশিফল ৪ ঠা জানুয়ারি ২০২১ সোমবার, দেখে নিন কেমন কাটবে আপনার গোটা দিন

কিন্তু এর পিছনে রয়েছে বৈজ্ঞানিক কারণ। কুল খেলে পেট ব্যাথা হতে পারে। তাই সুস্বাদু এই ফল যাতে বাচ্ছারা বেশি না খায় সেজন্যই এই বিশ্বাস ও ভয় মনের মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়৷ শীতে জ্বর সর্দি কাশির প্রকোপ বাড়ে। আর অন্যদিকে সরস্বতীর পুজোর আগ কাঁচা থাকে কুল৷ কাঁচা কুল টক হওয়ায় গলা, পেট ও দাঁতের জন্য ক্ষতিকারক। কিন্তু সরস্বতীর পুজোর সময় কুল পেকে যায়। তখন এই সমস্যা হয় না।

কিন্তু সরস্বতী পুজো চলে যাওয়ার পর খুব বেশি কুল পাওয়া যায় না বাজারে। টোপা কুল একেবারেই পেকে যায়৷ তাহলে বোঝা যাচ্ছে সরস্বতী পুজোর আগে কুল খেলে সমস্যা হয় শরীরে। তাই বারণ করা হয়৷ এর জন্য বিদ্যায় কোনো প্রভাব পড়ে না।