খেলাধুলানতুন খবরবিশেষ

জাতীয় দল থেকে কেন বাদ রয়েছেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না, অবশেষে জানা গেল কারণ..

আপাতত জাতীয় দল থেকে বাইরে রয়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। একসময় ভারতীয় দলের হয়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। শুধু ব্যাট হাতে নয় মাঠে ফিল্ডিংয়ে বহু রান বাঁচিয়েছেন ভারতের হয়ে। 2011 সালের ওয়ার্ল্ড কাপেও ভারতীয় দলের অংশ ছিলেন তিনি। কিন্তু বর্তমানে তিনি এখন কেন ভারতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না তার কারণ জানা গেছে। অনেকে -রই ধারণা উত্তরপ্রদেশের ক্রিকেটারদের ভারতের জাতীয় দলে সেরকম ভাবে সুযোগ দেওয়া হয় না।

কিন্তু এই ধারণা যে সম্পূর্ণ ভুল তা প্রমাণ করে দিলেন এমএসকে প্রসাদ। জাতীয় দলের এই সদ্য-প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, বেশ কয়েকদিন ধরে জাতীয় দলের হয়ে সুরেশ রায়না একদম পারফরম্যান্স করতে পারেননি তাই তিনি বর্তমানে জাতীয় দল থেকে বাইরে আছেন। 33 বছর বয়সের সুরেশ রায়না জাতীয় দলের হয়ে 226 টি ODI ম্যাচ এবং78 টি T-20 আর 18 টি টেস্টও খেলেছেন। ভারতীয় টিমের হয়ে 2018 সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষবারের মতোন খেলেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। আর এরপর থেকেই ভারতীয় দল থেকে ছিটকে যান তিনি। গতবছর হল্যান্ডে রায়নার হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়। এরপর থেকে তিনি সিএসকে জার্সি গায়ে পড়ে খেলতে মরিয়া হয়ে ওঠেন।পিটিআই কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন যে,”1999 সালে যখন লক্ষণকে ভারতীয় দল থেকে বাদ দেওয়া হয় সেই সময় ঘরোয়া ক্রিকেটে দুরন্ত পারফরম্যান্স করে আবার জাতীয় দলে জায়গা করে নেন তিনি। সিনিয়র ক্রিকেটারদের যখন এভাবে বাদ দেওয়া হয় তখন এটাই প্রত্যাশিত থাকে যে তারা আবার সেই জায়গায় ফিরে আসবে।”

এছাড়া তিনি আরো বলেন, ঘরোয়া ক্রিকেটের সুরেশ রায়না সেভাবে ভালো পারফর্মেন্স করতে পারেননি। অপরদিকে ভারতীয়-এ দলের হয়ে তরুণ ক্রিকেটাররা দুরন্ত পারফরম্যান্স করে জাতীয় দলে জায়গা করে নিচ্ছে। 2018-19 সালের মধ্যে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান উত্তরপ্রদেশের হয়ে মোট পাঁচটি রঞ্জি ম্যাচ খেলেন। আর তার মোট রান সংখ্যা ছিল 243। এই রানের মধ্যে তার দুটি হাফসেঞ্চুরি রয়েছে। পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে একটি ম্যাচেও সেঞ্চুরি করতে পারেননি তিনি। এছাড়াও গত বছর আইপিএল সেরকমভাবে পারফরম্যান্স করতে পারেননি তিনি। মোট 17 টি ম্যাচের রান সংখ্যা ছিল 383 টি। এই ঘটনার পর কয়েকদিন আগে রায়না তার নিজস্ব একটি ইউটিউব চ্যানেলে জানিয়েছেন যে, তাকে বাদ দেওয়ার পর নির্বাচকরা কী কারণে বাদ দিয়েছেন সে কথা উল্লেখ করেননি।  রায়নার এমন মন্তব্যের পর প্রসাদ জানিয়েছেন যে,” ওর মুখ থেকে এমন কথা শোনার পর সত্যিই খারাপ লাগছে। তার ঘরোয়া ক্রিকেটের রেকর্ড বলবে নির্বাচকরা তাকে কেন বাদ দিয়েছে। তবুও আমি ব্যক্তিগতভাবে রায়নার সঙ্গে  এ ব্যাপারে কথা বলেছিলাম এবং আমি তাকে বলেছিলাম কীভাবে জাতীয় দলে আবার ফিরে আসা যাবে। এরপর রায়না আমার উদ্যোগের প্রশংসা করেছিল। কিন্তু এখন ও কেন উল্টো সুর শোনাচ্ছে তা বুঝতে পারছিনা।”

Related Articles

Back to top button