বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে কাকে চাইছে‌ রাজ্যবাসী, বেরিয়ে এল সমীক্ষার ফলাফল

আগামী বিধানসভা নির্বাচন সামনেই৷  তা নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। ভোট ব্যাংকের দখল নিতে বাংলা শাসন করার  জন্য যেখানে প্রতিটা দল মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে সেই সময় সি ভোটারের জনমত সমীক্ষা বাংলার এই বছরের বিধানসভা ফলাফলের একটি ইঙ্গিত দিল।

সি ভোটারের সমীক্ষা অনুযায়ী তৃতীয় বারের জন্য বাংলার সিংহাসনে বসতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ হাতেই।  বেশিরভাগ মানুষই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ভরসা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর৷ ২০২১ এর নির্বাচনে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাকে চান বাংলার মানুষ?  সমীক্ষায় বাংলার ৪৯ শতাংশ মানুষ এক কথায় উত্তর দিয়েছেন – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisements

মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবিদার হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরেই রয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বাংলার ১৯ শতাংশ মানুষের মতে দিলীপ ঘোষ হতে পারেন বাংলার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisements

অন্যদিকে  তৃতীয় যোগ্যতম ব্যাক্তি সৌরভ গাঙ্গুলি। সৌরভ গাঙ্গুলি এই নামের সঙ্গে  বাঙালির অনেক আবেগ এবং নস্টালজিয়া । সমীক্ষা বলছে বাংলার ১৩ শতাংশ মানুষ সৌরভ গাঙ্গুলিকে বাংলার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে  দেখতে চাইছেন৷ তবে এখনও পর্যন্ত সৌরভ গাঙ্গুলির পরিচিতি খ্যাতনামা ক্রিকেটার হিসেবেই। সক্রিয় রাজনীতিতে অভিজ্ঞতা নেই তাঁর। আবেগের কারণেই হয়ত বাংলার মানুষের কাছে যোগ্যতম মনে হয়েছে দাদাকে৷

২০১৬ সালে নোট বন্দির পর আবার নেওয়া হবে এক বড় পদক্ষেপ, মার্চেই বাতিল হতে পারে ১০০ ও ১০ টাকার নোট

বর্তমানে বিজেপি নেতা মুকুল রায়এবার বিধানসভায়  হতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিদ্বন্ধী। সমীক্ষা বলছে বাংলার ৭ শতাংশ মানুষ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে যোগ্যতম মনে করছেন  মুকুল রায়কে।

তৃণমূল এবং বিজেপি এই দুই দলকে ঘিরে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল থাকলেও উঠে এসেছে সুজন চক্রবর্তীর নামও। বাংলার ৪ শতাংশ ভোটার সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীকে  বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে সর্বাধিক যোগ্য বলে মনে করছেন৷ পাশাপাশি কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর নামও উঠে আসছে। বাংলার ৩ শতাংশ মানুষ মনে করছেন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে চাইছেন অধীর চৌধুরীকে৷