কে আসল, কে নকল! চেনা দায়, গোটা বিশ্বের ঐশ্বর্যর মতো ছড়িয়ে রয়েছে ৬ জন ‘হামশকল ‘ মহিলা

পৃথিবীতে এমন অনেকেই আছেন, যাঁদের মুখের সঙ্গে তারকার মিল অনেকটাই থাকে। তাঁদের সঙ্গে দেখা হলে ক্ষনিকের জন্য ভেলকি খাবেনই খাবেন। মাঝেমধ্যেই চোখে পড়ে কিছু মানুষের মুখের আদল হুবহু কোন চেনা অভিনেতা- অভিনেত্রীদের মত। তবে যিনি বিশ্বসুন্দরী হন, তাঁর মতো সুন্দরী ও যে বিশ্বের যেকোন প্রান্তে ছড়িয়ে রয়েছেন,তাঁদের সন্ধান দিয়েছে ইনস্টাগ্রাম। এক গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে, সারা বিশ্বে ৬ জন মানুষ আছেন যাঁদের দেখতে হুবহু ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এর মত।

প্রথমত: যার নাম উঠে আসে তিনি হলেন আমনা ইমরান : – ২৬ বছর বয়সি পাকিস্তানি এই মহিলার ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের মত মুখের আদল হওয়ায় নেটদুনিয়ায় রীতিমতো জনপ্রিয়। তিনি নিজে হলেন পেশায় একজন বিশিষ্ট চিকিৎসক। টিক টক ভিডিও থেকে তাঁর খ্যাতির জয়যাত্রা শুরু। ঐশ্বর্যর অভিনীত দেবদাস, উম্রাও জান, মহাব্বতে ছবিগুলো দারুণ ভক্ত আম্মানা ইমরান।

দ্বিতীয়ত: যার নাম বলা যেতে পারে তিনি হলেন অমুজ অমৃতা :- ঐশ্বর্য অভিনীত ‘ইরুভর ‘ ছবির একটি দৃশ্যের সঙ্গে মিল রেখে এক ফটোশুটে নিজেকে তুলে ধরেন অমৃতা। আর অমুজ অমৃতার সেই ছবিতে ঝড় ওঠে ইন্টারনেটে। এরপর টিকটক আর ইনস্টাগ্রামে হিট হন তিনি। তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি অমুজ কে।

তৃতীয়ত: যার নাম বলা যেতে পারে তিনি হলেন মাহালাঘা জাবেরি :- ইরানি -আমেরিকান এই লেখিকার চোখের মনি ধূসর রংয়ের, ঠোঁট পাতলা। অনেকেই একনজর দেখে ভুল করে বসবেন।

চতুর্থত: যার নাম বলা যেতে পারে তিনি হলেন মানসী নায়েক :- মারাঠি অভিনেত্রী মানসী নায়েকের চেহারার সাথে ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের চেহারার এক অদ্ভুত মিল পাওয়া যায়।তাঁকে হুবহু অ্যাশ বলে অনেকেই তকমা দেন ইন্টারনেটে।

পঞ্চমত: যার নাম বলা যেতে পারে তিনি হলেন স্নেহা উল্লাল:- বলিউডের এই সুন্দরী অভিনেত্রী সালমান খানের হাত ধরে ২০০৫ সালে বলিউডের বিখ্যাত সিনেমা ‘লাকি’ তে অভিনয় করেছিলেন।তাঁর অভিনয় এবং মুখের হাবভাব দেখে দর্শকরা স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলেন। যদিও বলিউডে সেভাবে দর্শকদের মন মজাতে পারেননি স্নেহা।

ষষ্ঠতঃ যার নাম বলা যেতে পারে তিনি হলেন আশিতা রাঠোর :- ইন্টারনেটের সাম্প্রতিক সেনসশন আশিতা রাঠোরের সঙ্গেও ঐশ্বর্যর রূপের মিল পাওয়া গিয়েছে। এই অবস্থায় তাঁর রুপের ঝলক দেখে অনেকেই বলেছেন তিনি যেন হুবহু অ্যাশ। বর্তমানে একাধিক অনুগামী রয়েছে তাঁর।