কারা পেতে চলেছেন ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ড আর কারা পাবেন না , তালিকা ঘোষণা রাজ্যের..

আমরা সবাই জানি দারিদ্র সীমার ওপরের লোকেদের জন্য সস্তার চাল গম বরাদ্দ করা থাকে না সরকারের তরফ থেকে। তাই আমাদের সাধারণত যে রেশন কার্ড তারও প্রয়োজন নেই। এর পরিবর্তে দারিদ্র্যসীমার নিচে থাকা সমস্ত সচ্ছল পরিবারগুলি কে ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ড দেওয়া হবে। যা সরকারি পরিচয় পত্রের ভূমিকা নেওয়ার সাথে সাথে গণবণ্টন বহির্ভূত গেরস্থালির জিনিসপত্র কেনার ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় পাওয়া যাবে।

রাজ্যজুড়ে রেশন ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনার জন্যই সরকারের তরফ থেকে এই সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সমাজে প্রকৃত ভাবে দুস্থ পরিবারগুলির কাছে সঠিকভাবে রেশন কার্ড পৌঁছে দিতে এবার ভর্তিযুদ্ধ রেশন কার্ডের ক্ষেত্রে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে রাজ্য সরকার।আর এই নিয়ে সংবাদপত্রে একটি বিজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ড গুলি কারা পেতে চলেছেন। তারই তালিকা এবার ঘোষণা করা হলো রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

সংবাদমাধ্যমে জারি করে বিজ্ঞাপন থেকে জানতে পারা যাচ্ছে ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে বেশ কিছু বিধিনিষেধ নিয়ম চালু করা হয়েছে।আর্থিক দিক থেকে যারা সচ্ছল নাগরিক এই তাদের এই কার্ড ফেরত দিয়ে 10 নম্বর ফরম পূরণ করার ক্ষেত্রে ভর্তুকিহীন কার্ড নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে খাদ্য দপ্তর।যার দরুন এবার এই কাজে দ্রুততা আনতে সরাসরি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে খাদ্য দপ্তর এর তরফ থেকে। শুধু তাই নয় ইতিমধ্যে সরকারের এই বিধি মেনে অনেকেই কার্ড ফেরত দিতে শুরু করে দিয়েছেন।

 

মূলত এই তালিকায় রাখা হয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মী, সরকারি সাহায্যে পরিচালিত সংস্থার উচ্চপদস্থ ও সাধারণ কর্মীরা।আর এক্ষেত্রে শহর ও গ্রামীণ এলাকায় নাগরিকদের আর্থিক পরিস্থিতি বিষয়টি নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে খাদ্য দপ্তর এর তরফ থেকে। যা দরুন সেই সংক্রান্ত তালিকাও প্রকাশিত করা হয়েছে।যেখানে বলা হয়েছে যেসব বাড়িতে এয়ারকন্ডিশনার, চারচাকা গাড়ি, নেট চালিত কম্পিউটার,ল্যাপটপ থাকবে সেইসব পরিবারকে এই ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ডের গ্রাহকদের সংখ্যায় হবে না।

তার সাথে সাথে আরও বলা হয়েছে ওয়াশিং মেশিন, ফ্রিজ, ল্যান্ডলাইন ফোন, দু’চাকার গাড়ির মধ্যে যে কোন তিনটি থাকলে একই নিয়ম কার্যকর হবে কথা তাদেরও এক্ষেত্রে মিলবেনা ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ড।খাদ্য দপ্তরে তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে ইতিমধ্যে ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের যুক্ত করার কাজ চালু হয়ে গেছে বিভিন্ন জেলায়। আশা করা হচ্ছে এই বছরের মধ্যেই এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়ে যাবে এবং সামনের বছরের শুরুতে ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ডের গ্রাহকদের সংখ্যাকে খতিয়ে দেখা হবে।

রেশন কার্ডের স্বচ্ছতা আনার জন্য এই ক্ষেত্রে আর্থিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই তবে দেওয়া হবে ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ড।আরো বলে রাখি সমপ্রতি রেশন কার্ডের ডিজিটালাইজেশনের প্রক্রিয়ার জন্য এই পর্যন্ত প্রায় 11 লক্ষেরও বেশি গ্রাহকেরা ভর্তুকিযুক্ত রেশন কার্ডের জন্য আবেদন জানিয়েছেন। আর যেসব গ্রাহকেরা এই তালিকা থেকে বাদ পড়েছে তাদের ভর্তুকিহীন রেশন কার্ড পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে খাদ্য দপ্তর থেকে।

Related Articles

Close