করোনা মোকাবেলায় সম্পুর্ন ব্যর্থ! তাই WHO প্রধানের পদত্যাগের দাবি জানালো 10 লক্ষ জনতা

গোটা বিশ্ব জুড়ে মরন ভাইরাস করোনার দ্রাপট, আর এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে গোটা বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় 31 লাখেরও বেশি, শুধু তাই নয় এই ভাইরাসের জেরে প্রাণ হারিয়েছে গোটা বিশ্বে 2 লাখ 17 হাজার 985 জন। আর ভারতের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এই মরন ভাইরাস করোনার জেরে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 31 হাজার 361 জন, যাদের মধ্যে এখনো করোনা এক্টিভ রোগীর সংখ্যা রয়েছে 22,502 জন, তাছাড়া এই ভাইরাসে জেরে ভারতে প্রাণ হারিয়েছে 1008 জন।

এরকম এক পরিস্থিতিতে কোনো বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না WHO-এর তরফ থেকে। হু এর তরফ থেকে এরকম এক পরিস্থিতিতে দৈনিক বিবৃতি দেওয়া ছাড়া কোনো পদক্ষেপ নিতে দেখা যাচ্ছে না।তাই বলা যেতে পারে  WHO-এর ডিরেক্টর- জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus) করোনা রুখতে পুরোপুরি ব্যর্থ। এবং তিনি এখন পুরোপুরি ভাবে চীনের প্রতি পক্ষপাতে মেতেছেন । তাই WHO-এর ডিরেক্টর- জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুসের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে অভিযোগ তুলেছে 10 লক্ষ সাধারণ মানুষ এবং তার পদত্যাগের দাবি করা হচ্ছে। এই নিয়ে একটি অনলাইন পেটিশন ও তৈরি করা হয়েছে যেখানে এই পেটিশনের লেখা ছিল গত 23 শে জানুয়ারি 2020 সালে এই মরন ভাইরাস করোনাকে মহামারী বলে ঘোষণা করতে অস্বীকার করেছিলেন তিনি। তাছাড়া তিনি জানতেন এই করোনা ভাইরাসের আপাতত কোনও চিকিৎসা নেই। সেদিনের পর থেকে 5 দিনে করোনা সংক্রমনের মাত্রা এবং মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় দশগুণ বেড়ে যায়।

তাই এইসব মানুষের মৃত্যুর জন্য অধিকাংশ দায়ী রয়েছেন টেড্রোস আধানম WHO -এর ডিরেক্টর, যার জন্য এই আমজনতাদের তরফ থেকে দাবি তোলা হচ্ছে WHO-এর ডিরেক্টর- জেনারেলের পদে থাকার উপযুক্ত লোক নন। তাই পেটিশন জারি করে তার পদত্যাগের দাবি তুলেছে অধিকাংশ মানুষ। আর অনলাইনে এই পিটিশনের সই করে সম্মতি জানিয়েছে দশ লক্ষেরও বেশি সাধারণ জনতা। তবে এখানেই শেষ নয় এর পেছনে আরও জানানো হয়েছে, পদক্ষেপ গ্রহণ করা তো দূরের কথা এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্তা সবসময় লক্ষ্য করা গেছে চীনের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করতে। জনগনের দাবি WHO এর রাজনৈতিকভাবে নিরপেক্ষ হওয়া উচিত। তবে চীনের তরফ থেকে বার বার যে তথ্য দেওয়া হয়েছে তার সে চীনে মৃত ব্যক্তির সংখ্যা, অথবা এই করোনা বিষয়ক একাধিক তথ্য সেগুলি WHO চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করেছে এ বিষয়ে তদন্তের প্রয়োজন হয় বলে মনে করেননি তিনি। যদিও এই বিষয় নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তরফ থেকে একাধিকবার অভিযোগ আনা হচ্ছিল চীনের উপর, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বরাবর দাবি করে আসছিলেন চীনের তরফ থেকে করোনার জেরে যে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দেখানো হচ্ছে তাতে রয়েছে গলদ। শুধু তাই নয় চীনের অনৈতিক কাজে WHO এর তরফ থেকে অনেক সাহায্য করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন অনেকেই। আর এই অভিযোগের ভিত্তিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট WHO কে দেওয়া সমস্ত সাহায্য আপাতত বন্ধ রেখেছে। আর এবার 10 লক্ষ আমজনতা WHO এর কর্তারই পদত্যাগের দাবি উঠালো।

Related Articles

Close