যখন শহীদ জওয়ানের মৃত্যুতে শোকাতর গোটা দেশ তখন আনন্দ উল্লাসে মাতলো বাংলাদেশিরা…

নিজেদেরকে বাঙালির শ্রেষ্ঠ জাতি বলে গর্ববোধ করা বাংলাদেশ এখন ভারত তথা ভারতীয়দের জন্য ক্যান্সারে পরিণত হয়েছে। যেমন কী আমরা জানি গতকাল জলঙ্গি সীমান্ত এলাকায় বাংলাদেশিরা গুলি চালিয়েছিল আর যার দরুন ভারতের এক BSF জওয়ান শহীদ হয়েছেন। তবে এক্ষেত্রে বলে রাখি আচমকায় পেছন থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে এই ভারতীয় জওয়ানকে আর তারপর এটি কে নিয়ে নিজেদের বাঙালি বলে গর্ব বোধ করছে বর্বর বাংলাদেশীরা।

গতকাল মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল এলাকায় আর সেই সমস্যা সমাধানের জন্যই ফ্ল্যাগ মিটিং ডাকা হয়েছিল। বাংলাদেশীরা ভারতের তিনজন জেলেকে ধরে ছিল যার মধ্যে তারা প্রণব মন্ডল নামক এক ব্যক্তিটিকে ছাড়েনি আর তাকে ছাড়ানোর জন্যই আয়োজিত করা হয়েছিল এই ফ্ল্যাগ মিটিং এর। তবে ফ্ল্যাগ মিটিং খুব সাধারণ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবেই হয় কিন্তু নিজেদেরকে আরবের বংশধর বলে মনে করা বাংলাদেশিরা হঠাৎই BSF এর উপর গুলি চালায়।

আর তারপরই বাংলাদেশের বর্ডার গার্ড এর হামলায় শহীদ হন ভারতের বীর জওয়ান বিজয়বান সিং।তাছাড়া আরো এক BSF জওয়ান বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তবে অন্যদিকে ভারতীয়রা বাংলাদেশে এরকম এক নিন্দুক হামলার বদলা চেয়েছেন। তবে যেহেতু ভারত সরকারের সাথে বাংলাদেশের সরকারের খুবই গুরুত্ব সম্পর্ক রয়েছে তাই আদৌ কি সরকার এই বিষয় নিয়ে কোন পদক্ষেপ নেবে কিনা সে নিয়ে রয়েছে একাধিক প্রশ্ন।

আর তারপরে এই বিষয় নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে দুই সরকারের মধ্যে বন্ধুত্ব থাকলেও বাংলাদেশীরা কোনোভাবেই ভারতের ভালো চাই না তা বরাবরই প্রকাশ পেয়েছে। শুধু তাই নয় এখন ভারতের BSF জওয়ান শহীদ হওয়ার পর বাংলাদেশিরা এই বিষয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আনন্দ উল্লাস ও শুরু করে দিয়েছে। এর সাথে দুই বাংলাদেশিকে এটাও পর্যন্ত বলতে দেখা যাচ্ছে যে আমরা বাঙালিরা ভারত তথা ভারতীয়দের হারিয়ে দেবো।অর্থাৎ ভারতীয় বিএসএফ জওয়ানের হত্যা নিয়ে বাংলাদেশীরা কোন প্রকার অনুতপ্ত প্রকাশ করেনি। বাংলাদেশীদের সোশ্যাল মিডিয়া শুধুমাত্র দেখা যাচ্ছে ভারতবিরোধী শব্দ। অন্যদিকে ভারতীয় বিএসএফ বিজয়বান সিংয়ের পরিবার এই বিষয় নিয়ে সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছেন।

এর সাথে বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার পশ্চিমবঙ্গের মানুষ এবং বাংলাদেশীদের মধ্যে এই বিষয় নিয়ে বিতর্কের তৈরি হয়েছে। তবে আরো একবার স্মরণ করিয়ে দি, এই সেই বাংলাদেশে যাদের স্বাধীনতার জন্য ভারতীয়রা একসময় লড়েছিল। আর বর্তমানে যে কোন সাহায্যের প্রয়োজন হলে ভারতীয়রা তাদের হাত বাড়িতে সেই বাংলাদেশী এরা।

Related Articles

Back to top button