রাজ্যজুড়ে আংশিক লকডাউনের জোরে কেমন পড়ল প্রভাব? কতখানি ভিড় দেখা গেল বাজার হাট গুলিতে

করোনা সংক্রমণকে রাশ টানার জন্য গতকাল অর্থাৎ ৩০ এপ্রিল থেকে পশ্চিমবঙ্গে অর্ধেক লকডাউন ঘোষিত হয়েছে ‌ এই ধরনের লকডাউনে বড় বড় শপিং মল, পার্লার, স্পা, জিম সেন্টার প্রভৃতিগুলি অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে। আর বড় বড় বাজার গুলিকে অর্ধেক সময়ের জন্য খোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাই আজকেই দেখে নেওয়া যাক কেমন করে অর্ধেক লকডাউন পালিত হচ্ছে।

 

আজ সকাল থেকেই কলকাতা শহরের একাধিক বাজার নির্ধারিত সময় মেনে খোলা হলেও তেমন ভিঁড় লক্ষ্য করা যায়নি। শহরের বড় সবজি বাজার মানিকতলা, গড়িয়াহাট বাজার মোটের উপরে ফাঁকাই রয়েছে আজ।

করোনা নিয়ে গতকাল বিকেলে জরুরি বৈঠকের পর নবান্নের তরফে আংশিক লকডাউনের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। তারপর থেকেই প্রশাসনের তরফ থেকে মাইকে করে করে ওই এলাকাগুলিতে লকডাউনের নির্দেশিকা প্রচার করা হয়।

লকডাউনের নিয়মে বলা হয় যে সকাল ৭ টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত সমস্ত দোকান খোলা থাকবে। আবার বিকেল তিনটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত দোকান খোলা থাকবে। তবে মুদির দোকান ওষুধের দোকান প্রভৃতিগুলি আংশিক লকডাউনের আওতায় আনা হবে না। সকাল থেকেই কলকাতার বড় বড় বাজারগুলি খুলে গিয়েছে।মানিকতলা বাজার, গড়িয়াহাট বাজার, দমদম বাজার, লেকটাউন বাজার, রাসবিহারী বাজার, কসবা বাজার খুলেছে। কিন্তু তেমন ভিড় তেমন নেই বললেই চলে। প্রতিদিনের ব্যস্ত কলকাতার থেকে ভিড় কম রয়েছে বাজারে।