মাসুদ আজহারকে নিয়ে চীনের সিদ্ধান্তের পর কী প্রতিক্রিয়া ক্ষুব্ধ ভারতের..

14 ই ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হওয়ায় সিআরপিএফ কনভয়ের ওপর হওয়া জঙ্গী হামলায় 40 জন সিআরপিএফ জাওয়ান শহীদ হয়। সারা দেশের মানুষ এর বদলা চাই ছিল। 26 শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান সীমান্তে ঢুকে বালাকোট স্থানে জইশ-ই-মহম্মদের প্রধান জঙ্গী খাঁটি কে গুড়িয়ে দিতে সক্ষম হয় ভারতীয় বায়ুসেনা। এরপর 27 শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মহলে মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গী ঘোষণা করার জন্য আহ্বান জানায় ফ্রান্স, ইংল্যান্ড এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ভারতের সাথে প্রায় সমস্ত দেশে জইশ-ই- মহম্মদ জঙ্গি সংগঠনের প্রধান মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গী হিসেবে ঘোষণা করার পক্ষে মত প্রকাশ করেছে।

 

তবে ফের আরেকবার চীন ‘ টেকনিক্যাল হোল্ড’ নামক এক হাতিয়ারে প্রয়োগ করে মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গী হিসেবে ঘোষণা করা থেকে বাধা দিয়ে রেখেছে। এ বিষয়ে ভারত সরকারের প্রতিক্রিয়া?রাষ্ট্রপুঞ্জের 1267 মঞ্জুর কমিটি জইশ-ই-মহম্মদের প্রধান মাসুদ আজহার কে জঙ্গি ঘোষণা করা নিয়ে এ দিন পর্যন্ত কোনও একটি স্থির সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি। কারণ চিন এই প্রক্রিয়াটিকে বাধা দিয়েছে।বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, এই সিদ্ধান্তে তারা পুরোপুরি হতাশ। একটি জঙ্গী সংগঠনের প্রধান যে কাশ্মীরে হওয়া জঙ্গি হামলার দায় স্বীকার করেছে তাকেই আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করা থেকে বিরত থাকতে হল।ভারত নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশ গুলির কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছে যারা মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করার পক্ষে মত দিয়েছে। আর নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য বা যারা সদস্য নয় এ বিষয়ে তারাও ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে।

এ বিষয়ে যারা ভারতকে সহযোগিতা করেছেন তাদের সবাইকে অনেক ধন্যবাদ জানিয়েছে। ভারত সব সময় চেষ্টা করে যাবে যারা ভারতের নাগরিকদের ওপর হামলা চালাচ্ছে বা চালানোর চেষ্টা করছে তাদের কড়া শাস্তি দেওয়ার।