নতুন খবরবিশেষরাজ্য

রেশনের কারচুপি ও লম্বা লাইনের ভীড়ে লাগাম টানতে নতুন নির্দেশিকা রাজ্য সরকারের..

দেশজুড়ে লকডাউন জারি করার আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল রাজ্যের গরীব দুঃস্থ মানুষদের আগামী 6 মাসের জন্য বিনামূল্যে দেওয়া হবে রেশন পরিষেবা। আর নিয়ম অনুযায়ী সেই পরিষেবা চালু করা হয়, তবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই বিষয় নিয়ে একাধিক অভিযোগ উঠতে শুরু করে কথাও কথাও অভিযোগ ওঠে গ্রাহকদের পর্যাপ্ত রেশনের চেয়ে কম পরিমাণে মাল দেবার আবার কোথাও অভিযোগ ওঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে রেশন প্রদান করার।

আর এই রেশনের দুর্নীতিকে রুখতে ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দুটি টোল ফ্রি নম্বর শুরু করা হয়েছে যেখানে গ্রাহকেরা তাদের অভিযোগ জানাতে পারবেন। তবে এরপর আবার রাজ্য সরকারের তরফ থেকে রাজ্যের রেশন দুর্নীতিকে রুখতে আরো এক নতুন রাস্তা বেছে নিয়ে আসা হল। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জারি করা এই নতুন বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে এবার থেকে রেশন ডিলাররা চাল, গম, আটা প্যাকেজিং করে গ্রাহকদের হাতে তুলে দিবেন। এরপর গ্রাহকেরা সেখানে মাল নিতে এলেন তা হাতে হাতে ধরিয়ে দেবেন যার ফলে গ্ৰাহকেরা একদিকে যেমন দীর্ঘ লম্বা লাইনে দাঁড়ানোর হাত থেকে বাঁচবে ঠিক সেরকম আবার এক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব ও বজায় থাকবে। এর পাশাপাশি রেশনে কাউকে কম মাল দেওয়ার অভিযোগ ও উঠবে না।আর এই নতুন বিজ্ঞপ্তি টি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে গত শনিবার দিন জারি করা হয়েছে।রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত বৃহস্পতিবার দিন ভবানিপুরে অবস্থিত একটি রেশন দোকানে হাজির হন সেখানে গ্রাহকদের সাথে কথা বলেন এবং জানেন সেখানকার গ্রাহকদের একাধিক অসুবিধার কথা। এর পাশাপাশি এই দিন তিনি কীভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রেশন গ্রহণ করতে পারবেন গ্ৰাহকেরা তারও পরামর্শ দেন এইদিন। আর সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এর পাশাপাশি তিনি রেশন ডিলারদের আবেদন জানান প্যাকেটিং করে যেন রেশনের জিনিসপত্র গ্রাহকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।এই প্রসঙ্গ নিয়ে গত শুক্রবার দিন নবান্নে একটি প্রশাসনিক বৈঠকের আয়োজন করা হয় সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 5 কিলো প্যাকেটে, প্যাকেট করে জিনিসপত্র যাওয়া যায় কিনা সেই বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করতে বলেন।এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানান এক্ষেত্রে যদি রেশন দোকানে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে যেকোন পার্শ্ববর্তী ক্লাব বা কোন জায়গা থেকে প্যাকেটিং করেও সেটি আনা যেতে পারে।আর এই রেশন সামগ্রী গুলি প্যাকেটিং করার জন্য যেকোনো স্বনির্ভর গোষ্ঠী অথবা 100 দিনের কাজের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের নিয়োগ করা যেতে পারে। আর মুখ্যমন্ত্রীর এরকম এক পরিকল্পনার পরই নবান্নর তরফ থেকে প্যাকেজিং করার বিষয়টি নিয়ে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button