নন্দীগ্রামে ৮০% ভোট ছাপ্পা, যা নিয়ে রাজ্যপালকে আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রী মমতার

২০২১ এর বিধানসভা ভোট পশ্চিমবাংলায় আটটি দফায় হতে চলেছে। প্রথম দফার ভোট সমাপ্ত হয়েছে ২৭ মার্চ। দ্বিতীয় দফার ভোট হয়েছে আজ অর্থাৎ ১ এপ্রিল। নন্দীগ্রামের ভোট হয় এই দ্বিতীয় দফার ভোটে। আজই নন্দীগ্রাম কেন্দ্রের ভোট হয়। নন্দীগ্রামের বয়াল গ্ৰামটির ৮০ শতাংশ ভোটই নাকি ছাপ্পা ভোট হয়। এমনই অভিযোগ করেছে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।

 

এবারের বিধানসভা ভোটের হটস্পট হল নন্দীগ্রাম। নন্দীগ্রামে এবার তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তার বিপরীতে লড়াই করছেন বিজেপি থেকে শুভেন্দু অধিকারী। আজ ছিল নন্দীগ্রাম আসনের ভোট। এই ভোটে বেশ কয়েক জায়গায় সংঘর্ষ বাঁধে। কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

নন্দীগ্রামের বয়াল গ্ৰামে তৃণমূলের পোলিং এজেন্টের ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে বসতে দেওয়া হয়নি। বিজেপির তরফ থেকে এই কাজটি করা হয়েছে বলে গুঞ্জন ওঠে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপালকে ফোন করে অভিযোগ করেন যে ওই গ্রামে নাকি ৮০% ছাপ্পা ভোট হয়ে গেছে। সাধারণ মানুষকে ভোট দিতে দেওয়া হয়নি।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করতে গিয়ে জানিয়েছেন, “কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশে বহিরাগতদের দিয়ে অশান্তি বাধানো হচ্ছে। এখনও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। আমরা আদালতে যাব”।