সাইক্লোন বুলবুলের রেশ যেতে না যেতেই আবার তৈরী আরেক ঘূর্ণিঝড় ‘নাকড়ি’

সম্প্রতি যে প্রচণ্ড গতিতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল রাজ্যের দিকে ধেয়ে আসছিল তাতে আশঙ্কা করা হয়েছিল এর ফলে রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চল গুলির সাথে সাথে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে যার জন্য তৈরি করা হয়েছিল কন্ট্রোল রুম রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় জেলায়। তবে এই ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর প্রভাব রাজ্যের সব জেলায় পড়েনি ফলে রাজ্যের অনেক প্রান্তই এই ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে বেঁচে যায়।

তবে এর কিছু ক্ষতিগ্রস্ত প্রভাব পড়েছে সুন্দরবন, কাকদ্বীপের সন্দেশখালি, পূর্ব মেদিনীপুর সহ সমস্ত উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে। এখনো পর্যন্ত এই বুলবুলের রেশ পুরোপুরি ভাবে কাটিয়ে উঠতে পারেনি রাজ্যবাসী। এই নিয়ে গতকাল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লক্ষ্য করা যায় আকাশ পথে দক্ষিণ 24 পরগনার বেশ কিছু জায়গা ঘুরে দেখতে।তারপরই তিনি বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেদের জন্য দু’লক্ষ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করে দেন।

এরমধ্যে দেখা মিলল ঘূর্ণবর্তের। ঘূর্ণিঝড় বুলবুল যে ঘূর্ণবর্ত থেকে সৃষ্টি হয়েছিল তার নাম ছিল “মাতমো”। যার উৎস স্থল ছিল দক্ষিন সাগর। আর এখান থেকেই ছিটকে তৈরি হয়েছিল ঘূর্ণিঝড় “বুলবুল” যায় ব্যাপক প্রভাব পড়েছিল রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চল গুলিতে। শুধু তাই নয় যার জেরে বাংলার কিছু প্রান্তে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। তবে এখন আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে জানানো হচ্ছে ঠিক একই ধরনের আরও একটি ঘূর্ণবাত তৈরি হচ্ছে দক্ষিণ চীন সাগরে যার নাম “নাকড়ি”।

আর এই যথেষ্ট শক্তিশালী ঘূর্ণবাতের ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে ভিয়েতনামের দিকে।তাই এখন আশঙ্কা করা হচ্ছে ভিয়েতনামে উপকূলে ভারী বৃষ্টিপাত ঘটানোর পর কিছুটা হলেও শক্তি কমে যাবে এই নিম্নচাপটির।তারপর ধীরে ধীরে এই নিম্নচাপটি দক্ষিণ থাইল্যান্ড অতিক্রম করে মায়ানমারে দক্ষিণ ভাগে এসে পৌঁছাবে। তবে ধীরে ধীরে আরো কমে যাবে এই ঘূর্ণবর্তের শক্তি।তবে এখন আবহাওয়া বিদদের তরফ থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে মায়ানমারের পর ফের বঙ্গোপসাগরে আসবে এই ঘূর্ণিঝড় আর একবার বঙ্গোপসাগরে এই ঘূর্ণিঝড় এসে গেলে ফের নিজের শক্তি সঞ্চয় করে নিতে পারবে এই ঘূর্ণিঝড়।

আর এরকমটা যদি হয়ে যায় ফের বড় বিপদ ঘনিয়ে আসতে চলেছে ভারতের দক্ষিণভাগ প্রান্তে।তবে এখনো পর্যন্ত আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে একথা পরিস্কার হয়ে বেরিয়ে আসেনি যে এই ঝড় কবে এসে পৌঁছাবে তার সঠিক সময় খান।