আগামী বছর ১০ দিন আগে থেকে রাজ্য জুড়ে পালিত হবে দুর্গোৎসব, বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতার

কলকাতা সহ তথা গোটা পশ্চিমবঙ্গের মানুষের কাছে দুর্গাপূজা একটি গর্বের ব্যাপার। চলতি বছরে সেটি আরো দ্বিগুন হয়ে গেছে কারণ দীর্ঘদিনের অপেক্ষার পর কলকাতার পুজো গোটা বিশ্বে একটি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ করেছেন। হেরিটেজ তকমা দেওয়া হয়েছে ইউনেস্কোর তরফ থেকে কলকাতার দুর্গাপুজোকে। এইরকম একটি সুখবরের উপলক্ষেই মুখ্যমন্ত্রী জানালেন, আগামী বছর অর্থাৎ ২০২২ সালে দুর্গাপুজো পালন করা হবে ১০ দিন আগে থেকে।

বৃহস্পতিবার সমস্ত জয়ী প্রার্থীদের নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মহারাষ্ট্রের বাড়িতে একটি বৈঠক করেছেন এবং সেখানেই কলকাতার দুর্গাপুজো বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে গোটা ব্যাপারটি উঠে আসে। বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, আগামী বছরের দুর্গাপুজো ১০ দিন আগে থেকে পালন করা শুরু হবে কলকাতায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান,” কলকাতা হলো সবার সেরা এবং আগামী দিনেও কলকাতাকে যাতে সেরার সেরা হিসাবে প্রস্তুত করা যায় সেই দিকে নজর দিতে হবে আমাদের। কলকাতার পুজো যে হেরিটেজের তকমা পেয়েছে গোটা আন্তর্জাতিক জগতে, সেটাই আমরা সেলিব্রেট করব আগামী বছরে দশ দিন দুর্গাপূজা উদযাপন করে”।কিন্তু কীভাবে এটি উদযাপিত হবে,সেটি সকলের সামনে পরিষ্কার ভাবে তিনি জানাননি।

প্রসঙ্গত, ইউনেস্কোর তরফ থেকে একটি টুইট করে জানানো হয়,” মানব সভ্যতার সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের দিক থেকে সবথেকে অতুলনীয় হয়েছে এবার কলকাতার দূর্গা উৎসব”। এই খবর শুনে কলকাতা শহরে উৎসবের আমেজ তৈরি হয় এবং কলকাতার রাজপথে দেখা যায় পূজো প্রেমিকদের পায়ে হেঁটে এই আনন্দ উদযাপন করতে। ভার্চুয়ালি ভাবেও এই আনন্দ পালন করেছেন অনেকে। কেউ কেউ পোস্ট লিখেছেন ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ দিয়ে, কেউ আবার মা দুর্গার চালচিত্রর রেপ্লিকা তৈরি করেছেন।উল্লেখ্য, সম্প্রতি কলকাতা পুরসভার ভোট শেষ হয়েছে এবং ১৪৪ টি আসনের মধ্যে তৃণমূল জয়যুক্ত হয়েছে ১৩৪ টি আসনে।