দূরে রাখতে চান শরীরের একাধিক রোগব্যাধি!তাহলে আজই শুরু করুন বিট নুন খাওয়া, কিভাবে খাবেন জানতে

আমরা সাধারণত খুব একটা বেশি বিট লবণ খাইনা। অথচ প্রতিদিনের খাবারে সাদা নুন ব্যবহার করে থাকি। আসলে বিটনুন এর উপকারিতা সম্পর্কে খুব একটা স্বচ্ছ ধারণা আমাদের নেই। তাই হয়তো সাধারণভাবে আমরা বিটনুন খাই না। কিন্তু জানলে অবাক হবেন শরীরের অনেক জটিল সমস্যা সমাধান করে দিতে পারে বিটনুন। আসুন দেখে নিন…

বিট নুন

কী কী উপকারিতা রয়েছে বিটনুন এর দেখুন :-

১) বদহজমের অব্যর্থ ওষুধ বিটনুন। ধরুন আপনার বদহজমের সমস্যা হচ্ছে বা একটু বমি ভাব দেখা গিয়েছে, সে ক্ষেত্রে বিটনুন খেলে এই সমস্ত সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। কারণ এই নুন শরীরে হজমশক্তি কে বৃদ্ধি করে।

২) আপনি যদি ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন কিন্তু পারছেন না সেক্ষেত্রে নিয়মিত একটু করে বিটনুন খান। এতে ওজন কমবে দ্রুতগতিতে। কারণ বিটনুন শরীরের কোষ গুলিতে ঠিক যতটা প্রয়োজন, ততটা সরবরাহ করে। ফলে মেদ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব।

৩) বিটনুন এ বিভিন্ন খনিজ থাকে। খনিজের মধ্যে থাকে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা শরীরের ব্যাকটেরিয়া যত সংক্রমনের আশংকা অনেকাংশে কমিয়ে দেয়।

৪) আপনি যদি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন শারীরিক শক্তির অভাব মেটাবে বিটনুন এতে সোডিয়াম থাকায় শরীরে অনেকটাই তরতাজা করে তোলে।

৫) হাড় ক্ষয় রোধে কি করবেন ভাবছেন সে ক্ষেত্রে বিটনুন খান পুষ্টি উপাদান ও খনিজের পরিমাণ বেশি থাকায় নিয়মিত খাদ্যতালিকায় রাখলে হাড় মজবুত হয়।

৬) বিট নুন খেলে রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রিত থাকে ফলে ডায়াবেটিসে ভুগছেন যারা, তারা সাদা নুন না খেয়ে বিটনুন খান এতে উপকার পাবেন হাতেনাতে।

বিট নুন

কিভাবে খাবেন বিটনুন দেখুন:-

ঘুম থেকে উঠে সকালবেলায় বিড্রুম খেতে পারেন এক গ্লাস গরম জল করে তাতে বিট নুন মিশিয়ে দিন এবং সেই ভিডিওর মেশানো জল খান রোগব্যাধি আপনার থেকে ১০ হাত দূরে থাকবে।