দিদি নং ১-এ রচনার পরিবর্তে সুদিপাকে দেখতে নারাজ দর্শকগণ, দিলেন শো বয়কটের ডাক

বাংলা টেলিভিশনের অন্যতম বিখ্যাত এবং শুধুমাত্র মেয়েদের রিয়ালিটি শো বলতে আমরা জানি “দিদি নাম্বার ওয়ান” কে।বিগত ১০ বছর ধরে এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালনার দায়িত্ব সামলেছেন অভিনেত্রী রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অসাধারন সঞ্চালনা সহজে মুগ্ধ করে সকলকে। যেমন দাদাগিরি আমরা সৌরভ গাঙ্গুলী ছাড়া ভাবতে পারিনা, তেমনই দিদি নাম্বার ওয়ান ভাবতে পারি না রচনা ব্যানার্জি ছাড়া।

তবে সম্প্রতি জি বাংলা দিদি নাম্বার ওয়ানের সঞ্চালনার দায়িত্বে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে রান্নাঘরের সঞ্চালিকা সুদিপা চাটার্জীকে, সঙ্গ দিচ্ছেন অভিনেতা সৌরভ দাস। সম্প্রীতি রচনা ব্যানার্জীর বাবা রবীন্দ্রনাথ ব্যানার্জী প্রয়াত হয়েছেন।১৬ অক্টোবর আচমকা হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত হয়েছেন রচনা ব্যানার্জীর বাবা। স্বাভাবিকভাবেই এই সময়ে সঞ্চালনার দায়িত্ব থেকে কিছু দিনের জন্য ছুটি নিয়েছেন রচনা ব্যানার্জী।

কিন্তু সমস্যা হয়েছে অন্য জায়গায়। রচনা ব্যানার্জীকে দেখে আমরা এতটাই অভ্যস্ত হয়ে গেছি, নতুন সঞ্চালক এবং সঞ্চালিকাকে একেবারেই পছন্দ করছে না সাধারণ দর্শক। সম্প্রতি চ্যানেলের তরফ থেকে সৌরভ এবং সুদিপাকে নিয়ে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যার কমেন্ট বক্সে নেটিজেনরা নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।

ক্ষোভ উগরে দিয়ে এক নেটিজেন বলেন, “সুদিপার বুড়ো বয়সে ন্যাকামি আর দেখতে ইচ্ছা করছে না। তার থেকে যতদিন না রচনা ব্যানার্জি আসছেন, কতদিন অনুষ্ঠান বন্ধ করে রাখা হোক”। অন্য একজন নেটিজেন বলেন, “সুদিপাকে রাঁধুনি হিসাবে মানায়, তাঁকে মানায় না কোন সঞ্চালিকার দায়িত্বে”। আবার একজন বলছেন, “সঞ্চালিকা পরিবর্তন করবেন না, অনুষ্ঠান বন্ধ হয়ে যেতে পারে”।

প্রসঙ্গত, বাবার প্রয়াণে বিধ্বস্ত অভিনেত্রী সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন, ভাবতে পারিনি একা হয়ে যাব। ভাবিনি তুমি চলে যাবে, আর আমাকে একা থাকতে হবে। তুমি ভালো থাকো বাপি। তোমার আশীর্বাদ তোমার সঙ্গে আছে, আমি জানি।