চীনের বিকল্প হিসেবে ভারতকে সমর্থন জানাচ্ছে আমেরিকা

করোনা সংক্রমণ নিয়ে কার্যত নাজেহাল সারা বিশ্ব। এর আগে মার্কিন সংস্থাগুলি চীনে লগ্নি টানার ইচ্ছা প্রকাশ করতো। কিন্তু যেদিন থেকে করোনা সংক্রমণের জন্য চীন দায়ী হয়েছে সেদিন থেকেই মার্কিন সংস্থাগুলি চীনের সাথে ব্যবসা করতে চাইছে না আর। এমন কী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সারা বিশ্বের এমন অবস্থার জন্য দায়ী করেছেন একমাত্র চীনকে। ভারতে লগ্নি করার বিষয়টিও মার্কিন সরকার সমর্থন করেছে। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশিত।

খবর পাওয়া গেছে আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ভারতের উদ্যোগে গত সপ্তাহে ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট এবং ভারতে কর্মরত মার্কিন সংস্থার প্রতিনিধিদের নিয়ে এক বৈঠক হয়। এবং এই বৈঠকে চীনের বিকল্প হিসেবে ভারতে গন্তব্য করা হোক ব্যবসার এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই ভার্চুয়াল মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট এর দক্ষিণ এশিয়ার সহ-সচিব থমাস বজদা জানিয়েছেন, চীনের যে সমস্ত শিল্পগুলি উৎপাদন হয় সেইগুলি ভারতের জন্য সুবিধাজনক হয়ে উঠতে পারে।

বিভিন্ন মার্কিন প্রতিনিধি সংস্থার তার থেকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, ভারত সরকার ইন্সেন্টিভ অফার করলে মার্কিন ব্যবসা ভারতে সরে আসবে যার একটা পরিবেশ তৈরি হয়ে গেছে। মার্কিন রাষ্ট্রদূতের মুখপাত্র নয়াদিল্লিতে এ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে চাইনি। অপরদিকে আবার ভারতে থাকা আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স-এর মতামত চাওয়া হলে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে খবর সূত্রে জানা গিয়েছে, ডিপার্টমেন্ট ফর প্রমোশন অফ ইন্ডাস্ট্রি অ্যান্ড ইন্টারনাল ট্রেড একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে বিভিন্ন মন্ত্রক এবং অন্যান্য দপ্তরের যুগ্ম সচিবদের নিয়ে বিভিন্ন শিল্পের কাছ থেকে মন্তব্য চাওয়া হয়।

একদিকে যেমন মার্কিন শিল্প সংস্থাগুলির চাইছে ভারতের শিল্প করার তেমনি আবার অপরদিকে ভারত সরকারও চাইছে ভারতে বেশ কিছু ক্ষেত্রে বিনিয়োগ আসুক। যেমন সড়ক পরিবহন, ক্ষুদ্র ছোট মাঝারি উদ্যোগ ইত্যাদিতে যেখানে দ্রুত অনুমতি চাইছে চীন থেকে ভারতে সরে আসার জন্য। সোমবার সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠকের সময় প্রধানমন্ত্রী সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের লগ্নি টানার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলেছেন। এখন দেখার বিষয় করোনা সংকট পেরিয়ে যাবার পর এদেশে কতখানি মার্কিন শিল্প সংস্থা আসছে।

আরও পড়ুন :