বঙ্গোপসাগরে ফের ঘনিয়ে আসছে নিম্নচাপের ছায়া, ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে প্রতি ঘন্টায় বইবে ঝড়ো হাওয়া

ফের নিম্নচাপের ভ্রুকুটি!! দক্ষিণ আন্দামান সাগর ও বঙ্গোপসাগরে ২৯শে নভেম্বর থেকে নিম্নচাপ তৈরি হবে বলে জানা গিয়েছে এবং সেই নিম্নচাপের জেরেই ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে তা ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হবে বলে জানা যাচ্ছে এবং সেই ঘূর্ণাবর্তে অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়া বেশ জটিল হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। এমনকি সাইক্লোনের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না মৌসম ভবন।

এমনকি আরও জানানো হয়েছে, নিম্নচাপ তৈরীর মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই এটি বেশ শক্তিশালী হয়ে উঠবে এবং উত্তর-পশ্চিম দিকে ক্রমশ এগিয়ে যাবে। তার ফলে ৩০ শে নভেম্বর এবং ১লা ডিসেম্বর প্রবল বৃষ্টিপাত হবে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি দক্ষিণ আন্দামান সাগরে ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় ঝোড়ো হওয়া বয়ে যাবে। বঙ্গোপসাগরে ১লা ডিসেম্বর এই ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে, যার জেরে বঙ্গোপসাগর যথেষ্টই উত্তাল থাকবে।

সাধারণত ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বঙ্গোপসাগর উত্তাল হয় অক্টোবর-নভেম্বর মাসে। তবে এবারে বেশ ব্যতিক্রম, কারন তেমন কোনো পরিস্থিতি এখনো তৈরি হয়নি। তবে এই ঘূর্ণাবর্তের জেরে ও মৌসুমী অক্ষরেখার প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। গত ২৭ শে নভেম্বর পর্যন্ত চেন্নাই শহরে যথেষ্ট বৃষ্টিপাত হয়েছে।

আইএমডি এর তথ্য বলছে এখনো পর্যন্ত রেকর্ড বৃষ্টিপাত হয়েছে চেন্নাইয়ে।১০৮.৮ সিএম যা হয়েছিল১৯১৮ সালের নভেম্বরে। তবে এখনো পর্যন্ত চেন্নাইয়ে যেভাবে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা বলা হচ্ছে, তাতে একসময় ২০১৫ সালের রেকর্ডটিও ভাঙতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে, সব মিলিয়ে যে আশঙ্কার মেঘ জমছে মানুষের মনে , সেটাই বড় চিন্তার বিষয় কারণ একের পর এক নিম্নচাপের প্রভাবে জনজীবন যথেষ্টই ত্রস্ত।