নতুন নিয়ম আনতে চলেছে রেলওয়ে, সময়ের আগে স্টেশনে পৌঁছালে দিতে হবে ৩০ টাকা

একদিকে যেমন একাধিক সুযোগ-সুবিধা সাধারণ মানুষকে দিয়ে চলেছে রেল, তাহলে অন্যদিকে এবার নিজের কোষাগারকে কিছুটা চাঙ্গা করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে রেল কর্তৃপক্ষ। এই উদ্দেশ্যে স্টেশনে দ্বিতীয় শ্রেণীর প্রতীক্ষালয় গুলিকে বেসরকারীকরণের উদ্যোগ নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ, যার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। জানা যাচ্ছে, এই বেসরকারি করনের ফলে ট্রেন ধরতে আপনি যদি অনেক আগে চলে আসেন এবং প্রতীক্ষালয় গিয়ে বিশ্রাম করেন, সে ক্ষেত্রে আপনাকে ঘন্টা পিছু দিতে হবে, অতিরিক্ত ৩০ টাকা।

রেলের একটি নির্দেশিকা অনুযায়ী, ট্রেন ধরতে এসে আর স্টেশনে অপেক্ষা করতে পারবেন না, যাত্রীরা। সময়ের অনেক আগে পৌঁছে গিয়ে যদি প্রতীক্ষালয়ে বসে অপেক্ষা করেন যাত্রীরা সেক্ষেত্রে মাথাপিছু দিতে হবে ৩০ টাকা। ছেলের সময়সূচি ৩০ মিনিট আগেই স্টেশনে ঢুকতে পারবেন যাত্রীরা। বোঝাই যাচ্ছে যাত্রীদের প্রতীক্ষালয় অপেক্ষা করাবার নতুন একটি ফন্দি এঁটেছে রেল কর্তৃপক্ষ।

রেলের এই নতুন নিয়ম অনুযায়ী, ট্রেন ছাড়ার তিন ঘন্টা আগে আপনি অবশ্যই ঢুকতে পারবেন স্টেশনের প্রতীক্ষালয়ে, কিন্তু আপনাকে যেতে হবে ঘন্টা পিছু ৩০ টাকা করে। বেশ কিছু বছর আগে উচ্চ শ্রেণির যাত্রীদের থেকে এইভাবে ঘন্টা পিছু ১০ টাকা ধার্য করা হতো কিন্তু নন এসি প্রতীক্ষালয় গুলিকে এতদিন যাত্রীরা বিনি পয়সা ব্যবহার করতে পারতেন। তবে এই নতুন নিয়ম অনুযায়ী এবার থেকে সমস্ত প্রতীক্ষা লয় গুলি ব্যবহার করার জন্য যাত্রীদের দিতে হবে ৩০ টাকা করে।

পূর্ব রেলের এক আধিকারিক এই বিষয়ে জানিয়েছেন, রেলের এই সিদ্ধান্তের ফলে যাত্রীদের ওপর স্বাভাবিকভাবেই অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু ঝামেলা এবং খরচ কমানোর জন্য এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে রেল কর্তৃপক্ষকে। অন্যদিকে প্রতীক্ষালয়গুলির ভার ভবিষ্যতে তুলে দেওয়া হবে বেসরকারিকরণের হাতে, তাই রক্ষণাবেক্ষণ থেকে সাফাই সবকিছুই তারা দেখবে। এর ফলে বেশ কিছুটা দায়িত্ব কমে যাবে রেলের।