ভারতের মাটিতে দাঁড়িয়ে পাকিস্তান থেকে জঙ্গিবাদ মুছে দিবার কড়া হুঁশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের…

এই প্রথমবার ভারতের মাটিতে পা রাখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর আজ থেকে শুরু হলো তার দুদিনে ভারত সফর, ঘড়ির কাঁটায় যখন ঠিক সকাল 11:30 তখন আহমেদাবাদের বিমানবন্দরের মাটিতে তার হাইটেক বিমান এয়ার ফোর্স ওয়ান ল্যান্ডিং করলো। সেখানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডিকে স্বয়ং অভ্যর্থনা জানালেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাদের কে বরণ করে নিলেন দেশের মাটিতে।আর তারপরে বিমানবন্দর থেকে সোজা চলে গেলেন সবরমতী আশ্রম ভ্রমণে। সেখানে সবরমতী আশ্রম পরিদর্শন করে বেরিয়ে পড়লেন মেতেরা স্টেডিয়ামে উদ্বোধনে।

দুই দেশের মধ্যে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হলো এই অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রাখতে মঞ্চে উঠেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী এবং আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বন্ধু বলে সম্বোধন করে নিলেন প্রধানমন্ত্রী। আর ভারতের ঐতিহ্যকে তুলে ধরে অভিনন্দন জানালেন ট্রাম্প দম্পতিকে। এরই সাথে তুলনা করলেন স্ট্যাচু অব লিবারটি ও স্ট্যাচু অফ ইউনিটির ও। অন্যদিকে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প ও নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন।

শুধু তাই নয় এইদিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পাশাপাশি বলিউডের প্রশংসা শোনা যায় এই দিন মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখে। সাথে সাথে বলিউড ও খেলার জগতের প্রশংসা জানিয়ে, নাম করলেন ব্লকবাস্টার সিনেমা DDLJ এর ও।এরই সাথে চিনিয়ে দিলেন ভারতের বহুত্ববাদ সংস্কৃতির কথা উল্লেখ করেন এবং বৈচিত্রের মধ্যে যে ঐক্যের ধারণা সেটি ভারতের কাছ থেকে শিক্ষণীয় বলে মনে করেন তারই সাথে তিনি উল্লেখ করলেন স্বামী বিবেকানন্দ, মহত্মা গান্ধী, সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেল এর নামও। তবে এই দিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্যের আরো কিছু মূল দিক ফুটে উঠলো।

যার মধ্যে রয়েছে ভারতের সাথে আমেরিকার অত্যাধুনিক যুদ্ধের সরঞ্জাম নিয়ে চুক্তি ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক।এরই সাথে এই দিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইসলামিক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন সাথে সাথে 300 কোটি মার্কিন ডলারের চুক্তির কথাও জানালেন ভারতের সাথে।এরই সাথে সন্ত্রাস দমনে বিশেষত পাকিস্তানের মাটি থেকে জঙ্গীবাদ মুছে দিতে একসাথে কাজ করার বার্তাও দিলেন ট্রাম্প। শুধু তাই নয় এই দিন তিনি জানিয়ে দিলেন ভারতের সাথে অর্থনৈতিক যে বিনিয়োগ সেটির রাস্তা আরও মসৃণ করতে চুক্তির প্রস্তাব নেওয়া হবে।অবশেষে মোদীকে ধন্যবাদ জানিয়ে দেশবাসীর প্রতি অভিনন্দন বার্তা দিয়ে ভাষণ শেষ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এরই জবাবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও দুই দেশের বন্ধুত্বের দীর্ঘায়ু কামনা করলেন।আর ভারত ও আমেরিকার মধ্যে যে স্বাভাবিক স্বতঃস্ফূর্ত বন্ধুত্ব রয়েছে সেটি ভবিষ্যতে এই ভাবেই থাকবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করলেন তিনি। এইভাবে শেষ হল মোতেরা স্টেডিয়াম এর অনুষ্ঠান।

Related Articles

Close