ভাগ্য বদলে দিতে পারে তুলসীর শিকড়, অর্থকষ্ট থেকেও মিলবে মুক্তি

প্রত্যেক হিন্দু বাড়িতে তুলসী গাছ থাকা বাঞ্ছনীয়। হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী তুলসী গাছকে পবিত্র বলে মনে করা হয়। বিশ্বাস করা হয়, যে বাড়িতে তুলসী গাছ অবস্থান করে সেই গৃহে কখনো বাধা বিপত্তি প্রবেশ করতে পারে না। তুলসী গাছ বাড়িতে থাকলে মা লক্ষী এবং ভগবান বিষ্ণুর কৃপা থাকে বাড়ির সকলের উপরে। কথিত রয়েছে, ভগবান বিষ্ণুর শয়ন শালগ্রাম রূপে তুলসীর শিকড়ের কাছে বাস করতেন। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, তুলসী গাছ তুলসী গাছের শিকড়ের বহুবিধ গুরুত্ব রয়েছে। তুলসী গাছের মূল অথবা শিকড় আপনি কিভাবে ব্যবহার করবেন এবং সেটি কীভাবে আপনার জীবনে সাফল্য নিয়ে আসবে, চলুন জেনে নেওয়া যাক।

কাজে সফলতা অর্জন করতে: কোন কাজে যদি ক্রমাগত আপনি ব্যর্থ হন তাহলে তুলসী গাছের শিকড় নিয়ে গঙ্গা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপরে এই শিকড়টিকে পুজো করুন। পুজো শেষে এদিকে হলুদ কাপড় বেঁধে আপনার কাছে রেখে দিলে আপনি অবশ্যই লাভবান হবেন।

গ্রহ শান্তির জন্য: জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী, আপনার জন্ম কুণ্ডলীতে যদি কোন গ্রহের ত্রুটি থাকে তাহলে আপনি একটি তুলসী গাছের পুজো করে সেটি শিকড় বার করে নিতে পারেন। এরপর লাল রঙের কাপড় অথবা তাবিজ ধারণ করুন এবং সেটির মধ্যে এই শিকড় বেঁধে রাখুন। অনায়াসে আপনার সমস্ত দুঃখ দুর্দশা দূর হয়ে যাবে।

ধন লাভের জন্য: আপনি যদি আর্থিক সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাহলে প্রতিদিন সকাল বেলা তুলসী গাছে জল নিবেদন করবেন এবং সন্ধ্যা হলে তুলসী গাছের তলায় প্রদীপ জ্বালাবেন। পাশাপাশি তুলসী গাছের শিকড় নিয়ে রুপোর তাবিজ করে গলায় পড়ে থাকবেন। এমন কাজ করলে আপনার অর্থ সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

নেতিবাচক শক্তির জন্য: আপনি যদি বাড়িতে অথবা অফিসে নেতিবাচক শক্তির সম্মুখীন হন তাহলে তুলসীর মালা বানিয়ে মন্দিরে অথবা অন্য কোথাও রেখে দিতে পারেন। এই কাজ করলে সমস্যা নেতিবাচক শক্তি দূর হয়ে যাবে।

মানসিক চাপ উপশম করার জন্য: মানসিক চাপমুক্ত থাকার জন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন তুলসী মূলের মালা। বাজার থেকে কিনে অথবা গাছ থেকে নিয়ে গলায় পড়তে পারেন। এটি ধারণ করলে আপনার মানসিক চাপ উপশম হবে এবং সমস্ত নেগেটিভ এনার্জি থেকে আপনি মুক্তি পাবেন। এছাড়াও তুলসী পাতার ব্যবহার করোনার মতো মহামারীর প্রকোপ কমিয়ে দেয় বলে বিশ্বাস করা হয়।