একঘর লোকের সামনে মহিলার গাল টিপে দিলেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়! ভাইরাল ভিডিও

গত ৫ ই মার্চ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোটের লড়াই এর জন্য তাঁর দলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছেন। প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই তৃণমূল সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি লড়াইয়ের জন্য জোরদার প্রচার করতে শুরু করে দিয়েছেন। বাঁকুড়ায় ভোট প্রচারের জন্য যান সেখানকার প্রার্থী সায়ন্তিকা। ওই সময় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায় তৃণমূলের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় একজন মহিলার গলা টিপে দিচ্ছেন।

 

বাঁকুড়ায় সায়ন্তিকা পদপ্রার্থী হওয়ার পর থেকেই তৃণমূলের একাংশের মধ্যে বিরোধের সুর সোচ্চার হয়ে ওঠে। সোমবার অর্থাৎ ৯ মার্চ বাঁকুড়ায় ভোট প্রচারের জন্য পৌঁছে গিয়েছেন অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দোপাধ্যায়। বাঁকুড়ায় পৌঁছানোর পর এই অভিনেত্রী প্রথমে মহামায়া মন্দিরে পুজো দেন। এরপর সেখান থেকে তিনি বাঁকুড়ার প্রাক্তন বিধায়ক প্রয়াত কাশীনাথ মিশ্রর বাড়িতে যান। এরপর তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে বাঁকুড়ার তৃণমূল ভবনে ফেরেন।

 

বাঁকুড়ার লোকজন সায়ন্তিকাকে দেখার জন্য জমায়েত হয়ে যান। মানুষের মন কাড়ার জন্য সায়ন্তিকা বলতে থাকেন, “আওয়ারা’ ছবির জনপ্রিয় সংলাপ বলে আপন করে নেন উপস্থিত মানুষদের। এই ছবিতে জিতের জনপ্রিয় সংলাপের আদলে সায়ন্তিকা বলেন, ‘মার গুঁড় দিয়ে রুটি, চিনি দিয়ে চা। বিজেপি এখান থেকে তাড়াতাড়ি পাত্তাড়ি গোটা। খেলা হবে।”

Advertisements

সায়ন্তিকাকে বাঁকুড়ায় পদপ্রার্থী করার জন্য তৃণমূলের অন্দরেই সৃষ্টি হয়েছে বিরোধীতার। বিরোধীপক্ষের ওই সমস্ত নেতারা সায়ন্তিকাকে বহিরাগত বলে তকমা দিয়েছেন। তবে ওইসব দিকে কান দিতে রাজি নন সায়ন্তিকা। তিনি বললেন যে তাঁর কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই কারণ তাঁর সামনে দাঁড়িয়ে আছেন স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই। এই ভিডিওটাতে দেখা যাচ্ছে যে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় একজন মহিলার গলা টিপে দিচ্ছেন। তারপর থেকেই ভিডিওটি ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় অন্য কোনো উদ্দেশ্য নিয়ে মহিলাকে গলা টিপে দিতে যাননি। স্নেহের সাথে মজা করে গলা টিপতে গিয়েছিলেন ওই সাংসদ।

Advertisements

লকেট চট্টোপাধ্যায়কে পালটা আক্রমণ করে শ্রীরামপুরের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ লিখেছেন, ‘লকেটের টুইট দেখেই বোঝা যায় কতটা নোংরা মন। ভাই-বোনের কী সম্পর্ক, সেটা তিনি জানেন না। অলোকা আমার বোনের মতো। ওকে ২৫ বছর ধরে চিনি। নোংরা মন লকেটের