ভুলে যান Truecaller এর ব্যবহার, এবার থেকে ভুয়ো কল যাচাইয়ের এর জন্য TRAI আনছে নতুন নিয়ম, ফোনেই দেখা যাবে আসল পরিচয়

এবার টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার নতুন চমক! আর কোনো গ্রাহকের পরিচয় গোপন থাকতে পারবে না; যার ফলে কারোর মোবাইলে ট্রুকলার না থাকলেও কোনো রকম কোনো অসুবিধাই হবে না।যদিও সবসময়ই ট্রুকলার সঠিক তথ্যই প্রদান করে মানুষজনকে তা নয়; সেক্ষেত্রে প্রতারকরা জাল পেতে রাখে, কিন্তু এবার টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া অর্থাৎ ট্রাই যে প্রক্রিয়া শুরু করতে চলেছে তাতে খুব সহজেই মিলবে সমাধান, এবার নয়া নিয়মে দেখতে পাওয়া যাবে কলারের আসল পরিচয়, এবার যথেষ্টই সহজ হয়ে উঠবে, কারণ প্রায়শই আমাদের কাছে যে সমস্ত ফোন আসে তা হল কোন ব্যাংক থেকে বলছি, ডেবিট কার্ডের পিন নম্বর জানতে চাওয়া হয়, না হলে তৎক্ষণাৎ তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবার হুমকিও দেয়া হয়।

এছাড়া কোন লিংকে পাঠানো হয়, তাতে ক্লিক করলেও মোটা অংকের লটারি জেতার মত সুবর্ণ সুযোগ আমাদের জীবনে একবার না একবার এসেইছে, এছাড়া কখনো কখনো কে ওয়াই সি ফর্ম জমা না দেওয়ার ফলে ফোনের সিমটি বন্ধ হয়ে যাবার মত হুমকিও দেওয়া হয়।প্রায়শই এমন কল পেয়ে থাকেন ইউজাররা, আসলে এই সমস্ত কিছুই হলো সাইবার জালিয়াতির এক অন্ধকার দিক, যার ফাঁদে পা দিলে নিমেষে হ্যাকাররা আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি করে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে।

এটি ছিল অত্যন্ত চিন্তার বিষয়, কিন্তু বর্তমানে ট্রাই শুরু করতে চলেছে কে ওয়াই সি ভিত্তিক প্রক্রিয়া, আসুন জানা যাক এতে কি সুবিধা পেতে চলেছে ইউজাররা। ধরা যাক মোবাইলে আপনার কোন ব্যক্তির নম্বর সেভ করা নেই, বর্তমানে তার আর প্রয়োজনও নেই, এবার থেকে কলিংয়ের সময় এমনিই ইউজাররা তাঁর নাম দেখতে পাবে। টেলিযোগাযোগ বিভাগের সাথে কথা বলেন ট্রাইয়ের নিয়ন্ত্রক চেয়ারম্যান পি ডি ওয়াঘেলা জানিয়েছেন আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন তাঁরা।

এই নিয়ম কবে থেকে হতে চলেছে আসুন জানা যাক:- কেওয়াইসি অর্থাৎ নো ইওর কাস্টমার পদ্ধতির মাধ্যমে কিভাবে শনাক্তকরণ করা হবে, প্রথমেই গ্রাহকদের কাছ থেকে অফিশিয়াল নাম-ঠিকানাসহ যাবতীয় ডিটেলস নেবে টেলিকম সংস্থাগুলি এবং ইনফরমেশনটি সঠিক কিনা তার জন্য গ্রাহকদের থেকে ভোটার আইডি কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স, বা ইলেকট্রিক বিলও জমা নিতে পারেন তাঁরা।

যার ফলে আর কলারের পরিচয় আর গোপন থাকবে না, এরপর ফোনের রিং বেজে উঠলে রিসিভারের স্ক্রিনে নির্ভুল ভাবে ফুটে উঠবে কলারের ডিটেলস, নিঃসন্দেহে এটি একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ, কিন্তু এই প্রক্রিয়াটি সঠিকভাবে কবে থেকে চালু হবে এবং সকলের জন্য বাধ্যতামূলক হবে কিনা সে সম্পর্কে এখনও স্পষ্ট ভাবে কোনো কথা জানা যায়নি।