আগামী কয়েক ঘন্টার মধ্যে রাজ্যের একাধিক জেলাতে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ধেয়ে আসছে বৃষ্টি

চৈত্র মাসের শুরু থেকে গরমের দাপট খুবই বৃদ্ধি পেয়েছে। বৈশাখ মাসে সকালে সূর্য ওঠার সাথে সাথেই গরমের দাপট বাড়তে থাকে। তবে গতকাল সন্ধ্যেতে ঝড়ো হাওয়ায় স্বস্তি মিলেছে শহরবাসীর। এবার শহরবাসীদের আরো কিছুটা স্বস্তি দেওয়ার জন্য আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে বৃষ্টি হবার খবর পাওয়া গেছে।

 

কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কলকাতা শহর বা তৎসংলগ্ন এলাকায় বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে স্বস্তি মিলতে পারে। বৃষ্টির সাথে বেশ ভালো পরিমাণে ঝেঁপে বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু এলাকায়। আজ সারাদিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি ছিল আজ দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

তবে সারাদিনই বাতাসের আর্দ্রতার জন্য অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। সন্ধ্যের পর আবহাওয়া বেশ ঠান্ডা হবে। সন্ধ্যের দিকে পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু এলাকার উপর দিয়ে বইতে পারে ঝড়ো হাওয়া। ঝোড়ো হাওয়ার সাথে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

গতকাল অর্থাৎ বুধবার সারাদিনের অস্বস্তিকর পরিস্থিতি থেকে রাজ্যবাসী নিস্তার পেয়েছিল রাত্রের আবহাওয়ায়। সামান্য বৃষ্টিতেই স্বস্তি মিলেছিল কলকাতার শহরবাসীদের। গত কালকের মত আজ সন্ধ্যাতেও দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু এলাকার উপর দিয়ে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সাথে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এই তালিকায় অবস্থান করা দক্ষিণ বঙ্গের জেলাগুলি হল পশ্চিম মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, পুরুলিয়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও বৃষ্টির দেখা পাওয়া যাবে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির মধ্যে রয়েছে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, দুই দিনাজপুর, মালদা।