আজ যুব দিবসের দিনে “কর্মসাথী” প্রকল্পের সূচনা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপকৃত হবে রাজ্যের বহু বেকার যুবক-যুবতী…

আজ 12 ই আগস্ট আর আজকের এই দিনটি হল আন্তর্জাতিক যুব দিবস। আজ বুধবার এই আন্তর্জাতিক যুব দিবসের দিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় “কর্ম সাথী” প্রকল্পের সূচনা করলেন। এইদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে এই প্রকল্পের শুরু ঘোষণা করলেন এবং জানালেন এবার থেকে এই কর্মসাথী প্রকল্প থেকে পাওয়া অর্থ দিয়ে বেকার যুবক-যুবতীরা ছোট মাপের ব্যবসা শুরু করতে পারবেন।ইঞ্জিন মুখ্যমন্ত্রী যে টুইটি করেন সেটিতে লেখা রয়েছে আজ এই আন্তর্জাতিক যুব দিবসের দিন পশ্চিমবঙ্গ সরকার যুব কল্যাণে অঙ্গীকারবদ্ধ।

এবং কর্ম সাথী নামের নতুন প্রকল্প চালু করা হচ্ছে যেখানে বেকার যুবকেরা যাতে স্ব-নির্ভর হতে পারে তার জন্য অতি সহজ শর্তে ঋণ এবং ভর্তুকি দেওয়া হবে এক্ষেত্রে।ভারতে বেকারের সংখ্যা 24% সর্বকালীন বেশি পশ্চিমবঙ্গের সেখানে এই হার 40 শতাংশ কমে গিয়েছে। শুধু তাই নয় বাংলা যুবসম্প্রদায় অতীতে ভারতের নেতৃত্ব দিয়েছে এবং আগামী দিনে ভবিষ্যতেও তা দিয়ে থাকবে। আর আমরা আমাদের এই যুবসম্প্রদায় জন্য গর্বিত তারাই আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যৎ তারাই নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

যুবকেরা মেধাবী, দক্ষ,পরিশ্রমী হয়ে থাকে এবং তাদের আজকের স্বপ্ন ভবিষ্যতে বাস্তব হবে। প্রসঙ্গত বলে রাখি 2020 সালের রাজ্য বাজেটে কর্ম সাথী প্রকল্পের প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। আর সেখানেই অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানিয়েছিলেন এই প্রকল্পের দ্বারা আগামী দিনে প্রতি বছর 1 লাখ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করা যাবে এবং তাতে আশাবাদী রয়েছে রাজ্য সরকারও।এখানে কর্মসাথী প্রকল্পের জন্য 500 কোটি টাকা বরাদ্ধ করেছিলেন অমিত মিত্র। এক্ষেত্রে এই ঋণ পেতে গেলে যুবক- যুবতীদের বিডিও অফিসে এর জন্য আবেদন করতে হবে, তারপর একবার নাম নথিভুক্ত করা হয়ে গেলেই অ্যাপের মাধ্যমে তারা টাকা পেয়ে যাবেন এক্ষেত্রে।