করোনার হাত থেকে বাঁচাতে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ সদ্যজাত শিশুদের মুখ ঢাকা হল এইভাবে

গোটা বিশ্ব জুড়ে এখন করোনার প্রকোপ আর এই মরন ভাইরাস করোনা জেরে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গেছে প্রায় 17 লাখের ও বেশি,আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছে প্রায় 1 লাখেরও বেশি মানুষ। ভারতেও এই মুহূর্তে এই মরণ ভাইরাস করোনার থাবা পড়েছে যার জেরে ভারতে এই মুহূর্তে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 8453 জন, আর ভারতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছে 289 জন।

তবে এই মরণ ভাইরাস করোনা যেভাবে প্রভাব বিস্তার করছে তার জেরে এই মুহূর্তে যেসব শিশুরা জন্মগ্রহণ করছেন তাঁদের জন্য এখন জন্য মহাদুশ্চিন্তা। যেহেতু হাসপাতালে প্রসব হয় সেহেতু কোন কারণবশত শিশুর মায়ের যদি এই ভাইরাসের সংক্রমণ হয়ে থাকে তারপর সদ্যোজাতের শরীরে করোনা জীবাণু থাকার আশঙ্কা রয়ে যাচ্ছে। তাই এরকম এক অবস্থায় কপালে চিন্তার ভাঁজ গর্ভবতীদের। আর এই ভয় কাটিয়ে তুলতে এক নতুন ব্যবস্থা গ্ৰহন করলো থাইল্যান্ডের হাসপাতাল।

যেখানে তারা সদ্যোজাত জন্ম হওয়া শিশুদের মুখ ঢাকছে একটি শিল্ড ব্যবহার করে, যাতে কোনভাবেই সেই সদ্যজাত শিশুটি করোনা জীবাণুর সংস্পর্শে না আসে। আর সেই এটই অভিনব ভাবনা চিন্তা করছে থাইল্যান্ডের পাউলো হাসপাতাল সেখান থেকে ছবি ভাইরাল হতেও গর্ভবতীরা বলছেন এখন এমন অবস্থায় যেন সব দেশেই এরকম এক পরিস্থিতি গ্রহণ করা হোক। প্রসঙ্গত বলে রাখি যেভাবে বয়স্কদের করোনা আক্রান্তের সংক্রমণ বেশি ঠিক সেরকম গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রেও ঝুঁকি রয়েছে এই করোনার প্রাদুর্ভাবের।

তাই এ মুহূর্তে খুব সচেতন থাকতে বলা হচ্ছে তাদেরকেও কারণ কোনো কারন বসত গর্ভবতী করোনা সংক্রমিত হলে তার সন্তানের মধ্যে সেই সংক্রমণ হবে কিনা তা এখনও স্পষ্ট বলা সম্ভব নয়। তাই এবার থেকে বাড়তি সতর্কতাটা নিতে চাইছে হাসপাতাল গুলিও, তাই এরকম এক পরিস্থিতিতে থাইল্যান্ড হাসপাতালে এই পদক্ষেপ উৎসাহিত করেছে আরো অনেক হাসপাতালকে। থাইল্যান্ড হাসপাতালেই ব্যবস্থা শুধু বিশ্বের অন্যান্য হাসপাতালকে নয় এর পাশাপাশি সচেতন করতে সাধারণ মানুষকেও। থাইল্যান্ড হাসপাতালের এরকম এক পদক্ষেপকে সাধারণ মানুষেরা সোশ্যাল মিডিয়ায় বাহ বা জানানো হচ্ছে।

More Stories
বড় খবর -সিবিআইয়ের নিরাপত্তায় রাজ্যে আরও সেন্ট্রাল ফোর্স পাঠালো কেন্দ্র..