সরকারের তরফ থেকে ২ লক্ষ টাকা পেতে আজই করুন এই কার্ডে নাম নথিভুক্ত, কীভাবে করবেন জানতে

করোনাকালীন পরিস্থিতিতেই সমগ্র দেশের অর্থনৈতিক পরিকাঠামো অত্যন্ত দুর্বল হয়ে পড়েছে। সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কর্মচারীরাও ক্ষতির মুখে পড়েছে। করোনা মহামারীর ফলে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শ্রমিক সম্প্রদায়ের মানুষেরা। সমগ্র দেশে পরিযায়ী শ্রমিক দের দুর্দশার কথা জনসম্মুখে উঠে এসেছে। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে অসংগঠিত ক্ষেত্রে কর্মীদের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। দেশে চালু করা হয়েছে ‘ওয়ান নেশন ওয়ান রেশন কার্ড’ প্রকল্প। ফলে দেশের সমস্যা প্রান্ত থেকেই শ্রমিকরা এই প্রকল্পের সুবিধা লাভ করতে পারবেন।

এই পোটার্লে দেশের সমস্ত ক্ষেত্রে অসংগঠিত শ্রমিক সম্প্রদায়ের সমস্ত রকম তথ্য নথিবদ্ধ থাকবে ।এর মাধ্যম থেকে একাধিক সুবিধা পাবেন অসংগঠিত শ্রমিকরা। ইতি মধ্যেই কয়েক কোটির শ্রমিক এই পোর্টালের নাম নথিভুক্ত করে ফেলেছে। মূলত ফুটপাতের ব্যবসায়ী, ঠেলাওয়ালা, রিক্সাওয়ালা ,অসংঘটিত বিভিন্ন ক্ষেত্রে শ্রমিকদের জন্য এই সুবিধা থাকছে। এ ধরনের শ্রমিকদের নির্দিষ্ট পোটার্লের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে একাধিক সুবিধা দেয়া হবে। এই পোর্টালে যদি কোন শ্রমিকের নাম নথিভুক্ত করা থাকে তাহলে ১২ ডিজিটের একটি অ্যাকাউন্ট নম্বর তাকে দেয়া হবে। এই ১২ ডিজিটের ইউনিভার্সাল অ্যাকাউন্ট নম্বরটি মূলত সারাদেশেই বৈধ।

এই কার্ড বানানোর জন্য কয়েকটি সহজ পদ্ধতি র মাধ্যমে যেতে হবে–

* প্রথমে একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

Advertisements

https://www.eshram.gov.in/ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে ” ই- শ্রম” রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সেল্ফ রেজিস্ট্রেশন ক্লিক করার পর পদ্ধতি শুরু হবে।

Advertisements

* এরপরের পদ্ধতিতে আপনার আধারের সঙ্গে লিংক আছে যে রেজিস্টার করা মোবাইল নম্বরটি দিতে হবে। এরপর আপনি EPFO নাকি ESIC কোন সদস্য তা সিলেক্ট করতে হবে।

 

* এরপর আপনার রেজিস্টার করা মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি আসবে। রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া পুরোপুরি সম্পূর্ণ করার জন্য আপনাকে আপনার ব্যাঙ্কের ডিটেলস দিতে হবে।

* এই ছাড়াও আপনি আপনার নিকটস্থ কোনো সিএসসি তে দিয়ে বায়োমেট্রিক দিয়ে নির্দিষ্ট পোর্টালে আপনার নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন।

এই পোর্টালের নাম নথিভুক্ত থাকা অসংগঠিত শ্রমিক এরা নানাবিধ সুবিধা পেয়ে থাকছে। এক্ষেত্রে শ্রমিকেরা দু লক্ষ টাকা পর্যন্ত বীমা পেতে পারেন। শ্রমিকদের কাজের ভিত্তিতে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ভাগ করা থাকবে এবং তাদের সমস্ত তথ্য এখানে ডিটেলস থাকবে নির্দিষ্ট ক্যাটাগরি অনুযায়ী শ্রমিকেরা সরকারি যোজনার বিভিন্ন রকম সুবিধা পেয়ে থাকবেন।

কোন কারণে যদি দুর্ঘটনাবশত বড় সড় দুর্ঘটনার শিকার হন অথবা আংশিক বিকলাঙ্গ হন তাহলে সেই সমস্ত শ্রমিকেরা দু লক্ষ টাকা পর্যন্ত জীবনবীমা পাবেন। এছাড়া সরকারের তরফ থেকে জানানো হচ্ছে দুর্ঘটনার ফলে সম্পূর্ণ বিকলাঙ্গ হয়ে মৃত্যু ঘটলে মৃত্যুর পরিবারকে দু লক্ষ টাকা দেওয়া হবে।