দিদিকে প্রধানমন্ত্রীর আসনে দেখার আসায় মস্তক-মুণ্ডন পালন হাজার জন কর্মী-সমর্থকদের

২০২১ এর বিধানসভা ভোটে বিপুল পরিমাণ ভোট পেয়ে জয়যুক্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গের মসনদে বসে তৃণমূল সরকার। বহু প্রচার করা সত্বেও বিজেপি শিবির পশ্চিমবঙ্গের ৭৭ টির বেশি আসন পায় নি। তারপর থেকেই নেটবাসীরা আসন্ন লোকসভা ভোটে মোদির বিপরীত মুখ হিসেবে মমতা ব্যানার্জিকে দেখতে চায়। এই ব্যাপারে গণ মাথা মুন্ডনের কর্মসূচি পালন করে চোপড়া ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

 

তৃণমূল সরকারের তরফ থেকেও প্রধানমন্ত্রী মোদী বিরোধী মুখ হিসাবে এবার মুখ্যমন্ত্রীকেই দেখার প্রচার চালিয়ে যায়। এবারের বিধানসভা ভোটে দু’শোর বেশি আসন পেয়ে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে তৃণমূল সরকার। অপরদিকে বিজেপির ভাগ্যে জুটেছে ৭৭ টি আসন। তারপর থেকেই মিডিয়ার জগতে ভাইরাল হয় হ্যাশট্যাগ দিয়ে, ২০২৪-এ বাঙালি প্রধানমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী লেখাটি।

এবার লোকসভা ভোটে বিজেপির বিরুদ্ধে মমতা ব্যানার্জিকে দেখার জন্য প্রচার চালালেন চোপড়া ব্লকের সুজালি অঞ্চলের ঘাসফুল সমর্থকরা। সভাপতি মহঃ আব্দুলের নেতৃত্বে, চোপড়া ব্লকের সুজালি এবং লক্ষ্মীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রায় ১৫০-২০০ জন তৃণমূলকর্মীরা একজোট হয়ে এই নতুন কর্মসূচী শুরু করেন। এই কর্মসূচিতে তারা গণ মাথা মুন্ডন করে। তিন দিন ধরে এই কর্মসূচি চলতে থাকে। তিন দিনে প্রায় ১০০০ জন মানুষ মাথা মুন্ডন করেন।

তৃণমূলের অঞ্চল আহ্বায়ক রসন আলী এই বিষয়ে বলেছেন ‘বিধানসভা নির্বাচনে হ্যাট্রিক করে তৃতীয়বারের জন্য বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা ব্যানার্জী। তাই এবার এরাজ্যের মানুষ প্রধানমন্ত্রীর আসনে তাকেই দেখতে চাইছেন। সেই কারণেই ‘মোদী হাটাও দেশ বাঁচাও’ শ্লোগান উঠেছে। আর এই গণ মাথা মুন্ডনের কর্মসূচী সেই কারণেই চালু করা হয়েছে’।