এবার পাকিস্তানের উপর হতে চলেছে তৃতীয় সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, আজ সকাল 11 টায় নেওয়া হবে বিশেষ পদক্ষেপ

বহু বছর ধরেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা চূড়ায় রয়েছে। এর আগে ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দুবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছে। যা দিয়ে পাকিস্তানকে এর আগে যথাযথ জবাব দেওয়া হয়েছে, কিন্তু এখন আবার ভারত তৃতীয়বারের মতো পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। যাতে এবার পাকিস্তান কখনই ভারতের সামনে চোখ তুলে দেখার সাহস না করে। আসলে শুক্রবার দিন জম্মু ও কাশ্মীরের গুরুত্বপূর্ণ বহুমুখী যোজনাগুলির সকাল 11 টায় এই জনশুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

আর এতে জেকেপিডিপি, দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড সেচ ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ বিভাগের পাশাপাশি প্রশাসনিক আধিকারিকরা উপস্থিত থাকবেন।পাকিস্তানের আগামী দিনের ভাগ্য কেবল এই জন শুনানিতেই স্থির করা হবে।আপনাদের জানিয়ে রাখি, Bhaderwah উজ দরিয়া কৈলাশ পর্বত থেকে শুরু হয় এবং যা পাকিস্তানের নানকোটায় পড়ে। তবে এক্ষেত্রে কেন্দ্র সরকারের হস্তক্ষেপে ফলে 100% জল জম্মু-কাশ্মীরে যাতে ব্যবহার করা যায় তার জন্য কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

আর এই প্রকল্পের কাজ একবার শেষ হয়ে গেলে জম্মু-কাশ্মীর থেকে পাকিস্তানে যাওয়া 95% জল বন্ধ হয়ে যাবে। যার ফলে বলা যেতে পারে পাকিস্তানে জলের সংকট দেখা মিলবে। এটি পাকিস্তানের কাছে তৃতীয় সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের চেয়ে কম নয়। আর এই পরিকল্পনার পরে পাকিস্তান কখনই ভারতকে চোখ দেখাবে না। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং বলেছেন যে জম্মু ও কাশ্মীরে এই প্রথম বহুমুখী প্রকল্পের স্বপ্ন ছয় দশক পরে বাস্তব হতে চলেছে। এই প্রকল্পে কেন্দ্রীয় সরকারের বিশেষ আগ্রহ হ’ল এই প্রকল্পটি সেচের একটি প্রধান উৎস হতে চলেছে আগামী দিনে।

তাছাড়া এই প্রকল্পের ফলে এলাকার মানুষ সেখানে উন্নয়ন করবে। শুধু তাই নয়, ভারতের তরফ থেকে পাকিস্তানের দিকে বয়ে যাওয়া জলও বন্ধ হয়ে যাবে। তার পাশাপাশি কান্দি অঞ্চল এই জল থেকে উপকৃত হবে। সরকারের এই উজ্জ্বল বহুমুখী প্রকল্প থেকে সাম্বা ও কাঠুয়া জেলাগুলি প্রচুর উপকৃত হবে। এখনো অব্দি কান্দি অঞ্চলে 16,000 হেক্টর জমিতে সেচের ব্যবস্থা ছিল, তবে এই প্রকল্পের পরে কান্দি অঞ্চলে 24,000 হেক্টর জমিতে সেচ দেওয়া হবে। এর অর্থ এই প্রকল্পটি সরাসরি 8,000 হেক্টর বৃদ্ধি করবে। তাছাড়া বিলাওয়ারের লিফট সেচও এই প্রকল্পের দ্বারা উপকৃত হবে।