এবার সারদাকাণ্ডের জন্য সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হল কুণাল ঘোষ ও শতাব্দী রায়ের

বিধানসভা ভোটের মুহূর্তেই তৃণমূলের দরজায় কড়া নেড়েছে ইডি। এবার সারদাকাণ্ডের জন্য কুণাল ঘোষ এবং শতাব্দী রায়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হল। তাদের তিন কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে খবর মিলেছে। এই নিয়ে এখনো পর্যন্ত সারদাকাণ্ডের জন্য প্রায় ৬০০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে কেন্দ্র।

 

তবে শুধু যে কুনাল ঘোষ এবং শতাব্দী রায়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে এমন নয় এর পাশাপাশি দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের সম্পত্তিও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। দেবযানী মুখোপাধ্যায় ছিলেন সারদা গ্রুপের ডিরেক্টর। সারদার মিডিয়া গ্রুপের সিইও ছিলেন তৃণমূলের মুখপাত্র তথা প্রাক্তন রাজ্যসভার সদস্য কুনাল ঘোষ। আবার অন্যদিকে সারদার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ছিলেন বাংলা সিনেমার নায়িকা তথা তৃণমূলের সাংসদ শতাব্দী রায়। এর আগে তাঁদের সিবিআই এর তরফ থেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। তারা বেশ কিছু হিসাব-নিকাশ দিয়েছিলেন সিবিআই দপ্তরকে। আর এই হিসাব নিকাশের ভিত্তিতেই এবার তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হল।

কিন্তু সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার কথা অস্বীকার করেছেন কুনাল ঘোষ। এ বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন যে তাঁর সাথে ইডির কথা হয়ে গেছে। কুনাল ঘোষ এর মতে এই খবরটি সম্পূর্ণই ভুয়ো। ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে যখন সারোদা কোনো দুর্নীতি ধরা পড়েনি তখনই কুনাল ঘোষ সারদার কাছ থেকে যা মাইনে নিয়েছিলেন, সংবাদমাধ্যমে চিটফান্ডের যে বিজ্ঞাপন নেওয়া হয়েছিল সবই তিনি ফেরত দিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু সেইগুলো ফেরত দেওয়ার প্রয়োজন ছিল না। কারণ সেগুলো সবই তিনি বৈধভাবে পেয়েছিলেন তবুও তিনি ফেরত দিয়ে দিয়েছেন তাই তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে না।