এবার লক্ষ্য দিল্লি জয়ের, একুশের মঞ্চ থেকে গোটা দেশে মমতার বার্তা পৌঁছে দিতে স্বয়ং কাজ করবেন অভিষেক

২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করে তৃতীয়বারের জন্য সরকার গঠন করেছে তৃণমূল কংগ্রেস এবার তাদের লক্ষ্য ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন। সেই লক্ষ্যে এবার সর্বভারতীয় স্তরে তৃণমূলকে পৌঁছে দিতে প্রস্তুত তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার সাথে দলের নতুন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসাবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও থাকছেন ফ্রন্টলাইনে। ২১ জুলাই শহীদ দিবস কে হাতিয়ার করে প্রথম জোরালো পদক্ষেপ নিতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এবার শুধু বাংলাতে নয় বাংলা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন রাজ্যে পৌঁছে যাবে মমতার আওয়াজ।এবার তামিলনাড়ু,গুজরাট,দিল্লি,ত্রিপুরায় জায়েন্ট স্ক্রিনে দেখানো হবে মমতার বক্তৃতা।

আবারও তৈরি হচ্ছে নিম্নচাপ, সাগরে পড়ার আগেই ১০ টি জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস! আবহাওয়া দপ্তরের তরফে জারি সতর্কবার্তা

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে এবারের বক্তব্যের অধিকাংশ জুড়ে থাকবে শুধুই বিজেপি বিরোধিতা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায় থাকবে বিজেপি বধের রণকৌশল। এর সাথে তৃণমূলকে বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে ২১৩ টিকিট নিয়ে এককভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে তৃণমূল। এরাজ্যে ভোটের সময় বিজেপির হয়ে প্রচারে দেখা গেছে একাধিক হেভিওয়েট নেতা থেকে মন্ত্রী।

যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ, রাজনাথ সিং, যোগী আদিত্যনাথ থেকে শুরু করে একাধিক হাইপ্রোফাইল নেতা মন্ত্রীরা বিজেপির হয়ে প্রচারে এসেছিলেন বাংলায়। বিধানসভায় বিপুল ভোটে জিতে মোদি বিরোধী প্রধান মুখ হিসাবে উঠে এসেছেন মমতা। বিধানসভা ভোটের সময় রোদে পুড়ে জলে ভিজে এদিক থেকে ওদিক দৌড়াদৌড়ি করে গেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

একুশের চ্যালেঞ্জ জিতে যে পরবর্তী লক্ষ্য ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন তা ভোটের পরবর্তী সময় থেকেই স্পষ্ট করে দেন অভিষেক। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানিয়েছিলেন দেশের কোনায় কোনায় ছড়িয়ে দিতে চান সবুজ আভা যেখানেই যাবেন সরকার গড়ার প্রস্তুতি নিয়েই পা রাখতে চান অভিষেক। তবে এবারে ভার্চুয়ালি একুশের মঞ্চে কি বার্তা দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী সেই দিকে তাকিয়ে তৃণমূল সমর্থকরা।