এবার গোটা ভারত জুড়ে খেলা হবে, আমরা নিশ্চিত ৩৫০ থেকে ৪০০ আসন পাব! ভবিষ্যতবাণী অনুব্রত মণ্ডলের

২১ সালের বিধানসভা ভোটে বিজেপিকে হারানোর পর একুশে জুলাই তৃণমূলের শহীদ দিবস পালনের মধ্য দিয়েই তৃণমূল কংগ্রেসকে এবার শুধু বাংলায় নয় গোটা দেশে ছড়িয়ে দেবার জন্যই উঠে পড়ে লেগেছে দলের কর্মীরা। মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণ শুধু এবার পশ্চিমবাংলায় যে দেখা গিয়েছে এমন নয়। পশ্চিম বাংলার পাশাপাশি সমগ্র দেশে এই ভাষণ দেখা গেছে।

২১ সালের বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করার মধ্য দিয়েই বিজেপির বিরুদ্ধ দল হিসেবে মমতা ব্যানার্জির নামটি উঠে এসেছে। এবার শুধু বাংলায় নয় দিল্লীর সিংহাসন দখল করাই হল তৃণমূলের মূল লক্ষ্য। আর সেই জন্যেই শহীদ দিবস পালনের দিন মমতা ব্যানার্জির ভাষন শুধু বাংলায় দেখা যায়নি বাংলার পাশাপাশি সমগ্র ভারতবর্ষে এই ভাষণ দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। মমতা ব্যানার্জি নিজেই বলেছেন, “বাংলা দেখিয়েছে। সব রাজ্যকে বলছি, যান নিজেদের নেতাদের বোঝান। সবাই মিলে ফ্রন্ট বানান।

রোগী মৃত্যুর পর ডাক্তার এলে কোনও লাভ হয় না। এখন আর সময় নেই। আমি দিল্লি যাচ্ছি। ২৬, ২৭, ২৮ এর মধ্যে কোনও মিটিং ডাকতে পারলে ডাকুন। সবাইকে মিলিয়ে আমরা ইউনাইটেড ইন্ডিয়া করতে চাই।”এবার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে একই সুরে সুর মেলালেন তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল। একুশে জুলাই এর মঞ্চে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী ১৬ আগস্ট খেলা দিবসের কথা ঘোষণা করেছিলেন। এই প্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডল বলেন “খেলা একটা হয়েছে। এরাজ্যের নির্বাচনে। আবার খেলা হবে। বিজেপিকে ভারত থেকে বিতাড়িত না করা অবধি খেলা হবে।”

একুশে জুলাই এর অনুষ্ঠান শেষে বীরভূমে সাংবাদিকদের কাছে অনুব্রত মণ্ডল বলেছেন, “আমরা বাংলাতে জিতে গিয়েছি। এবার সারা দেশে খেলতে হবে। এতে বিশেষ কিছু বলাবলির কিছু নেই। বাংলায় আমরা ফার্স্ট হয়েছি। এবার ইন্ডিয়াতেও খেলতে যাবো। ওখানেও ৩৫০ থেকে ৪০০ কাপ নিয়ে আসবো।”

এইব প্রবীণ নেতার এ দিনের কথায় আরও একবার স্পষ্ট হয়ে গেছে যে দিল্লি জয়ের জন্য তৃণমূল এবার ছক সাজিয়ে লড়াই করতে তৎপর হয়েছে। এর পাশাপাশি অনুব্রত মণ্ডল বলেছেন যে পেট্রোল এবং ডিজেলের দামের ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী যা ঘোষণা করেছেন তা একদমই সঠিক। মানুষের নিত্য কাজকর্মের জন্য পেট্রোল ডিজেল এবং গ্যাসের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। আগামী দিনে এগুলোর দাম বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রেগুলেটিং মিছিল করা হবে। এর সাথে তিনি একথা বলেছেন যে যারা রাজনীতি করতে জানে না তারাই কিন্তু ফোন ট্যাপ করে।