বাড়বে কর্মসংস্থান ঘুচবে বেকারত্বের জ্বালা! এবার বিদেশে নয়, উত্তরপ্রদেশেই তৈরি হবে স্বদেশী ব্রহ্মস মিসাইল

পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগামী ক্রুজ মিসাইল এখন ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর হাতে। এবার উত্তর প্রদেশ এই তৈরি করা হবে ‘ ব্রহ্মস ‘ক্ষেপণাস্ত্র। এমনটাই জানালেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।জানা গিয়েছে, আগামী ৩ বছরে ১০০- র ও বেশি ‘ব্রহ্মস ‘ মিসাইল তৈরি করা সম্ভব হবে ভারতের। এমন সাংঘাতিকভাবে টার্গেটের দিকে ছুটে যায়।’ব্রহ্মস ‘ যে রেডার তার আভাস মিললেও ‘ব্রহ্মস ‘ কে মাঝপথে রুখে দেওয়া কঠিন।

উত্তরপ্রদেশ সরকার জানিয়েছে,’ শীঘ্রই এখানে ব্রহ্মস মিসাইল তৈরি শুরু করা হবে। পাশাপাশি চলবে গবেষণা এবং প্রযুক্তিগত উন্নয়নের কাজ ও। যার ফলে দেশের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে উত্তরপ্রদেশে আরো অনেক প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রের কারখানা তৈরীর পথ সহজ হয়ে গেল। এই কারখানা থেকে আগামী ৩ বছরে প্রায় ১০০ র ও বেশি মিসাইল তৈরি করা সম্ভব হবে’।

পূর্বে উত্তর প্রদেশ এই প্রকল্প শুরু করার জন্য ব্রহ্মস এরোস্পেস এর ডিরেক্টর জেনারেল সুধীর কুমার মিশ্র, ২০০ একর জমি চেয়ে চিঠি দিয়েছিলেন ইউ পি আই ডি এর সিই ও এবং অতিরিক্ত মুখ্য সচিব অবনীশ অবস্তি কে। ডিফেন্স করিডর প্রকল্পের চিঠিকে সম্মতি জানিয়ে অবনীশ অবস্তি বলেন,’ মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ এর সঙ্গে ইতিমধ্যেই দেখা করেছেন এই সংস্থার কর্তারা। এমনকি প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ ও এই প্রকল্পের জন্য সম্মতি দিয়েছেন। তাই আমরাও জমি দিতে পেরেছি ব্রহ্মস এরোস্পেস কে’।

উত্তরপ্রদেশে এই কারখানা গড়ে উঠলে, কর্মসংস্থান পাবে বহু মানুষ। আমাদের দেশ ভারত উন্নয়নের পথে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। এ বিষয়ে উত্তরপ্রদেশ সরকারের মুখপাত্র জানান, এই ৩০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রকল্পে প্রায় ৫০০ ইঞ্জিনিয়ার ও প্রযুক্তিবিদ কাজের সন্ধান পাবেন। উৎপাদন কেন্দ্রে কাজ পাবেন প্রায় ১০ হাজার লোক। এবং ৫ হাজার মানুষের অপ্রত্যক্ষভাবে ও কর্মসংস্থান হবে। এই কারখানার মাধ্যমে সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবেও শক্তিশালী হয়ে উঠবে এই রাজ্য। ঘটবে শিল্পায়ন।এবং সংকটের মুহূর্তে ভারতের এই ব্রহ্মস হয়ে উঠবে’ব্রহ্মাস্ত্র ‘।