আবারো বড়সড় ধাক্কা খেলে চীন, এবার চীনের মাটিতে উৎপাদনের কাজ বন্ধ করতে চলেছে স্যামসাং…

গোটা বিশ্ব জুড়ে আজ যে করোনা মহামারির আকার ধারণ করেছে তার পেছনে রয়েছে চীন তা আর কারো জানতে বাকি নেই। শুধু তাই নয় এ বিষয়ে একাধিক বড় বড় দেশকে চীনের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখা গিয়েছে। এমনকি করোনা ছড়ানোর পর থেকে চীন থেকে একাধিক বাণিজ্যিক সংস্থা তাদের ব্যবসা গুটিয়ে অন্যান্য দেশে স্থানান্তর করতে শুরু করে দিয়েছে, যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল স্যামসাং। এর আগে যেমনটা আমরা জানি স্যামসাং এর তরফ থেকে চীনের স্মার্টফোন উৎপাদনের কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

 

আর এবার এই দক্ষিণ কোরিয়া সংস্থাটি চীন থেকে তাদের টিভি উৎপাদনের কারখানা বন্ধ করতে চলেছে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে যে দক্ষিণ কোরিয়ার এই সংস্থাটি তাদের ব্যবসাকে পুরোপুরি ভাবে চীন থেকে সরিয়ে নিয়ে আসতে উদ্যোগী হয়েছে।সম্প্রতি এখন যে রিপোর্টটি বেরিয়ে আসছে সেখানে বলা হয়েছে স্যামসাং চীনের তিয়াঞ্জিন থেকে তাদের টিভি উৎপাদনের কারখানা বন্ধ করা চিন্তাভাবনা করতে শুরু করে দিয়েছে। যদিও এই চিন্তা ভাবনা টি এখন নয় বরং 2018 সালের থেকেই শুরু করা হয়েছিল তবে সেই সময় কোন বিকল্প জায়গা না পাওয়াতে সেই চিন্তা ভাবনা সম্পূর্ণ করা হয়নি।

তবে এবার এই সংস্থাটি পুরোপুরি ভাবে সেই লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে তৎপর হয়ে উঠে পড়ে লেগেছে। বলে রাখি বর্তমানে চীনের টিভি কারখানাটিতে মোট 300 জনের মতো লোক কাজ করে থাকেন। আর এখন যে খবরটি বেরিয়ে আসে সেখানে জানা যাচ্ছে এই কারখানাটি আগামী নভেম্বর মাসেই পুরোপুরি ভাবে বন্ধ হয়ে যেতে চলেছে। তাছাড়া 2018 সালে চীনের তিয়াঞ্জিনের কারখানায় স্মার্টফোন উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছিল স্যামসাং। তারপর আবার 2019 সালে বন্ধ করা হয়েছিল হুইজো কারখানাটি।

 

তবে শুধু এই সংস্থা চীন থেকে তাদের ব্যবসা সরাতে উদ্যোগী হয়েছে শুধু তাই নয় পরবর্তীকালে এই সংস্থাটি ভারতের মধ্যে স্মার্টফোন এক্সপোর্ট বানানোর কথা ভাবনা চিন্তা শুরু করে। তাছাড়া এই রিপোর্ট অনুযায়ী আরো জানতে পারে যাচ্ছে ভবিষ্যতে স্যামসাং তাদের এলসিডি প্যানেল বানানোর কাজ বন্ধ করতে পারে এবং এবার থেকে তারা QOLED টিভির জন্য QD-OLED টেকনোলজি ব্যবহার করতে আগ্রহী হয়েছে যার ফলে পরবর্তী প্রজন্মে স্যামসাং যে টিভি গুলি আনতে চলেছে সেগুলিতে QD-OLED প্যানেলের ব্যবহার দেখা যেতে পারে এবং যার নাম দেওয়া হবে মাইক্রোলেড টিভি।