অবশেষে মিলে গেল অনুমোদন, এবার করোনার টিকা আনছে মুকেশ আম্বানির সংস্থা Reliance Jio

এবার টিকার দুনিয়াতেও আধিপত্য বিস্তার করতে চাইছে মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স। দেশীয় টিকা কোভিশিল্ড ও কোভ্যাকসিন এর পর এবার আসতে চলেছে মুকেশ আম্বানির সংস্থার করোনা টিকা। ভারতের সবচেয়ে বড় বেসরকারি সংস্থা’ লাইফ সাইন্স ‘ শাখার তরফ থেকে এই টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানোর অনুমতি মিলেছে। ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডের কাছে আবেদনের ভিত্তিতে এই অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এদিকে দেশের করোনা টিকার অনুমোদন পেয়েছিল সিরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড।

এরপরই অনুমতি পেতে দেখা যায় ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাকসিন। যদিও সঠিকভাবে ট্রায়াল’ প্রক্রিয়া চালানো হয়নি বলে শুরুতে একাধিকবার অভিযোগ উঠেছিল এই টিকার বিরুদ্ধে। বর্তমানে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে মোট ৬ টি টিকাকে। সিরামের কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিন ছাড়াও তালিকায় রয়েছে স্পুটনিক’ ভি, জনসন অ্যান্ড জনসন, মডার্ন ও জাইডাস কাডিলার জাইকভ -ভি। ট্রায়ালের সফল হলে এবার এই সকল অনুমোদন পাওয়া টিকার তালিকায় যুক্ত হতে পারে মুকেশ আম্বানির সংস্থার তৈরি টিকা।

ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, এবার সেই তালিকায় নাম তুলতে বদ্ধপরিকর রিলায়েন্স। করোনার এই টিকা নিয়ে রিলায়েন্স ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পর নিরাপত্তাজনিত আরো বেশ কিছু বিষয় খতিয়ে দেখবে। প্রথম ট্রায়াল চলবে ৫৮ দিন,সেখানে সফলতা মিললে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ট্রায়ালের পথে হাঁটবে আম্বানির এই সংস্থা।

চলতি বছর জানুয়ারি মাসে ভারতে প্রথম টিকার অনুমোদন দেওয়া হলেও প্রথমদিকে সেভাবে টিকাকরণের গতি পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে পুনরায় সংক্রমণ বাড়তে শুরু করলে সাধারন মানুষদের মধ্যে টিকা নেওয়ার হিড়িক লক্ষ্য করা যায়। তাই স্বাভাবিক ভাবেই নজরে আসে টিকার খামতি।সরকারের তরফ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, চলতি বছরের মধ্যেই দেশের প্রতিটি মানুষকে টিকাকরণ করানো হবে।

ভারতের মতো জনবহুল দেশে চলতি বছরের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণের জন্য যে পরিমাণ টিকার প্রয়োজন রয়েছে তাতে প্রথম থেকেই মনে করা হচ্ছিল আরো একাধিক সংস্থাকে এই টিকা করনের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে। আর এবার এই অনুমোদনের তালিকায় নাম উঠল মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্সের। কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভ্যাকসিনকেই একমাত্র হাতিয়ার বলে মানছে বিশেষজ্ঞরা। তাই একাধিক সংস্থাকে এই টিকাকরণের জন্য অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে।