দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

এবার ছোট ও মাঝারি শিল্পের জন্য একলক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করতে চলেছেন মোদি সরকার

গোটা বিশ্ব জুড়ে এখন একটাই সংকট COVID-19 ভারত সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ গুলিও এখন উঠে পড়ে লেগেছে কীভাবে এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোখা যায় নিজ নিজ দেশে তা নিয়ে। যেহেতু এই ভাইরাসের এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি সেহেতু এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে একটাই পথ রয়েছে গোটা বিশ্বের কাছে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স মেনটেন করা ও নিয়মিত নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা। তবে এবার যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেখানে শোনা যাচ্ছে শীঘ্রই আরও একদফা আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র সরকার। তবে এবার যে প্যাকেজের ঘোষণা করা হতে চলেছে সেটি দেশের ছোট ও মাঝারি শিল্পগুলির কথা ভেবেই হতে চলেছে।এই বিষয়ে অর্থমন্ত্রকের একটি সূত্র অনুযায়ী জানতে পারা গেছে আগামী দিনে মোটামুটি 1 লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করা হতে পারে এই ছোট ও মাঝারি শিল্প গুলিকে বাঁচিয়ে রাখার উদ্দেশ্যে যেহেতু এই মুহূর্তে বন্ধ রয়েছে দেশের সমস্ত ব্যবসা-বাণিজ্যে ধস নেমেছে দেশের অর্থনীতিতে যার জেরে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ছোট ও মাঝারি শিল্প গুলি।

যার দরুন এবার কেন্দ্রের তরফ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এই শিল্প গুলিকে বাঁচানোর, যার দরুনই এরকম এক পরিকল্পনা নেওয়া হতে পারে। গত কিছুদিন আগে 21 ডাউনের লকডাউন এর জেরে গরিব মানুষ এবং দিনমজুরদের পেট কিভাবে চলবে তার কথা মাথায় রেখেই অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ প্রায় 1.7 লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করেছিলেন। তবে সেই নিয়ে পরবর্তীকালে বিশেষজ্ঞরা দাবি করেন এই সামান্য অঙ্কের আর্থিক প্যাকেজের মাধ্যমে কিছুই হবে না,তাই এই অর্থের পরিমাণ কে আরও বাড়ানোর প্রয়োজন রয়েছে কেন্দ্র সরকারের। আর এখন বর্তমানে এই মরণ ভাইরাসের জেরে দেশজুড়ে যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তাতে এই লকডাউন এর মেয়াদ বৃদ্ধির সম্ভাবনা প্রবল দেখা দিয়েছে তাই এরকম এক পরিস্থিতিতে ছোট ও মাঝারি শিল্প গুলিকে চাঙ্গা করে তুলতে উদ্যোগী হয়ে উঠেছে কেন্দ্র সরকার।তাই জানতে পারা যাচ্ছে এবার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার যে প্যাকেজের ঘোষণা করতে চলেছে তাতে থাকতে পারে ব্যাংকের ঋণের পরিমাণ বাড়ানো পর কর ছাড়ের সীমা বাড়ানো ও আয় করে ছাড় দেওয়া।

আর গত বুধবার দিন কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয় ছোট ব্যবসায়ী ও অন্যান্য ব্যক্তিগত ট্যাক্সের রিটার্ন দেওয়া হবে 18 হাজার কোটি টাকার। অল ইন্ডিয়া ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বলেন কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার ও বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে তারা যা বিক্রি করেছেন তার দাম যেন দ্রুত মিটিয়ে দেওয়া হয় তিনি বলেন আমাদের পাওনা তাড়াতাড়ি মিটিয়ে না দিলে ব্যবসা চালানো কঠিন হয়ে উঠবে আগামী পরিস্থিতিতে।

Related Articles

Back to top button