থাকছে না ডিজিটাল রেশন কার্ড, এবার থেকে রেশন নিতে জারি ই-রেশন কার্ড

ভোটের আগে আরও সহজ হচ্ছে রাজ্যের রেশন ব্যবস্থা। আমজনতার সুবিধায় এবার ই-রেশন কার্ড (E-Ration card) চালু করতে চলেছে রাজ্যের খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তর (Food and supply department)। এরই সঙ্গে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে ডিজিটাল রেশন কার্ড। বৃহস্পতিবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে এ কথা জানানো হয়েছে খাদ্যভবনের তরফে। ই-রেশন কার্ডের দৌলতে এবার থেকে হাতে রেশন কার্ড না থাকলেও রেশন দোকান থেকে খাদ্যসামগ্রী নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হবে না। শুধুমাত্র রেজিস্টার্ড নম্বরটি বললেই গ্রাহককে রেশন দিয়ে দিতে পারবেন ডিলার। খাদ্য সরবরাহ ব্যবস্থাকে আরও সরলীকরণের লক্ষ্যেই ই-রেশন কার্ডের ভাবনা প্রশাসনের।

ডিজিটাল রেশন কার্ডের (DRC) কথা ঘোষণা করেছিল রাজ্য সরকার।  ডিজিটাল রেশন কার্ড তৈরির কাজ চলছে এখনও।  বেশ কিছু সমস্যার কারণে এখনও সকলে হাতে পাননি ডিজিটাল রেশন কার্ড। এবার সেই সমস্যার সমাধান করতে ডিজিটাল রেশন কার্ড তুলে ই-রেশন কার্ড আনল খাদ্য দপ্তর। প্রযুক্তি নির্ভর সময় মোবাইলেই সবসময় আপনার সঙ্গে আপনি  রাখতে পারবেন এই ই রেশন কার্ড। আগের মতো কাগজের রেশন কার্ড সঙ্গে না থাকলে রেশন পেতে সমস্যা হবে, তেমনটা আর নয়।

কীভাবে ই-রেশন কার্ডের মাধ্যমে রেশন পাওয়া আরও সহজ হচ্ছে?
খাদ্যদপ্তরের নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে গিয়ে ই-রেশন কার্ডের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন৷  অনলাইনে ফর্ম পূরণ করলেই একটি ওটিপি (OTP) আসবে। তার মাধ্যমে আপনার পরিচয় যাচাই হয়ে যাবে। এরপর গ্রাহক হিসেবে একটি নির্দিষ্ট রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেওয়া হবে আপনাকে৷ পিডিএফ ফর্ম্যাটে পাবেন রেশন কার্ডটিও।  ডাউনলোড করে রাখলেই কাজ শেষ। এবার যাওয়া-আসার পথে যদি রেশন  নেওয়ার প্রয়োজন হয়, তাহলে মোবাইলে রাখা পিডিএফ ফর্ম্যাটের কার্ডটি রেশন দোকানে দেখালেই সহজে রেশন পাবেন আপনি।

বেসুরো তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়, ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে শোরগোল রাজনৈতিক মহলে

যদি পিডিএফে রেশন কার্ডটি ডাউনলোড নাও করা থাকে, তাহলেও  নির্দিষ্ট রেজিস্ট্রেশন নম্বরটি রেশন ডিলারকে জানালে তিনি তা মিলিয়ে দেখে নেবেন৷ এরপর গ্রাহককে চিহ্নিত করে জিনিসপত্র দিতে পারবেন। মানুষের  সুবিধায় এই ই-রেশন কার্ড চালু করা রাজ্য সরকারের ভাল পদক্ষেপ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশ কটাক্ষ করে বলছেন,  ডিজিটাল রেশন কার্ড বণ্টনের ত্রুটি ঢাকতেই এই  ই-রেশন কার্ডের ব্যবস্থা।