বাংলায় বিজেপি জিতলে কে মুখ্যমন্ত্রী হবে সেই বিষয়ে এবার মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ

রাজ্যে ২৭ মার্চ থেকে শুরু হয়ে গেছে বিধানসভা নির্বাচন। এবার রাজ্যে আটটি দফায় হতে চলেছে বিধানসভা ভোট। ২৭ মার্চের পর আজ বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়েছে রাজ্যের দ্বিতীয় দফার নির্বাচন। দুটি দলই নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য জোরদার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বহুদিন থেকেই বাংলার মানুষের মনে একটা প্রশ্ন উত্থাপিত হয়েছে। সেই প্রশ্নটা হল বিজেপি যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে কে হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী? এই প্রশ্নের ইঙ্গিতপূর্ণ উত্তর দিলেন এবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

 

বাংলায় ক্ষমতায় আসার জন্য গেরুয়া শিবির মরিয়া হয়ে উঠেছে। আর ক্ষমতায় এলেই কে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হবে সেই বিষয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন যে, ‘বিধায়কই যে মুখ্যমন্ত্রী হবেন তার কোনও মানে নেই।’ অর্থাৎ এই কথার মাধ্যমে দিলীপ ঘোষ বোঝাতে চেয়েছেন যে জয়ী বিধায়ক হলেই যে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ পাবেন এমন নয়। অন্য কোনো নেতাকেও মুখ্যমন্ত্রীর পদ দেওয়া হতে পারে। তাহলে এবার প্রশ্ন ওঠে বাংলায় কী মুখ্যমন্ত্রীর দাবিদার দিলীপ ঘোষ হতে পারে? অবশ্য এই বিষয়ে মুখ খোলেননি এই বিজেপি সাংসদ।

বহুবার বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বহিরাগত শব্দটা ব্যবহার করেছেন। তবে বিভিন্ন সভাতেই নরেন্দ্র মোদি থেকে অমিত শাহ সকলেই জানিয়েছেন যে বাংলার ভূমি পুত্রই হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। শুভেন্দু অধিকারি, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় প্রভৃতি তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতারা যোগদান করেছেন গেরুয়া শিবিরে। তবে এরা কী বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন? সেই প্রশ্ন উঠেছিল চারিদিকে। এরপর মিঠুন চক্রবর্তী গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালে তখন প্রশ্ন ওঠে তবে কী বাংলার ভাবি মুখ্যমন্ত্রী মিঠুন চক্রবর্তী?

 

কিন্তু এই প্রবীণ অভিনেতাকে প্রার্থী না করায় সেই জল্পনাতেও জল ঢেলে দেয় গেরুয়া শিবির। আবার অন্যদিকে দিলীপ ঘোষ এবার প্রার্থী না হওয়ায় বিজেপি সমর্থকরা বুঝতে পারছিলেন না যে বাংলায় বিজেপি এলে কে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হতে পারে। তবে এদিনের দিলীপ ঘোষের বক্তব্য আরো বিতর্ক উস্কে দিল। তবে আগামী দিনে বিজেপি জয়ী হলে বাংলার সিংহাসনে বসবেন কী দিলীপ ঘোষ? তবে এই বিষয়ে কিছু মন্তব্য করেননি গেরুয়া নেতারা।

অন্যদিকে খড়্গপুরে জনসভা করতে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন যে দিলীপ ঘোষের জন্যই বাংলায় আবার পদ্ম ফুল ফুটতে শুরু করেছে। ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে খড়গপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হন দিলীপ ঘোষ। সেটাই ছিল তার সাংসদীয় জীবনে প্রবেশ। তারপর তিনি ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে জয়লাভ করেন। ওইবার লোকসভা ভোটে ১৮ টি আসন পেয়েছিল বিজেপি শিবির। বিজেপির এই সাফল্যের জন্য কেন্দ্রের তরফ থেকে দিলীপ ঘোষকেই রাজ্য বিজেপি সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।