এবার করোনা আক্রান্ত দিল্লির এক পিজ্জা ডেলিভারি বয়, হোম কোয়ারেন্টাইনে 72 টি পরিবার

দিল্লির এক পিজ্জা ডেলিভারি বয়ের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাসের জীবাণু। টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই এই ডেলিভারি বয়ের টিটমেন শুরু করা হয়েছে দিল্লির এক হাসপাতলে। আপাতত চিকিৎসাধীন রয়েছে এই ডেলিভারি বয়, তবে যেহেতু এই যুবকটি পেশায় একজন ডেলিভারি বয় আর এখন তার শরীরে রয়েছে করোনা ভাইরাস জীবাণু সেহেতু এই ডেলিভারি বয়ের সংস্পর্শে আসা আরো 72 টি পরিবারকে ইতিমধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

আর যাদেরকে ইতিমধ্যে কোয়ারেন্টাইন এ রাখা হয়েছে তারা প্রত্যেকে এই যুবকের সংস্পর্শে এসেছিলেন। দিল্লির দক্ষিণ সাবিত্রী নগরের মালভিয়া নগরের বাসিন্দা এই ডেলিভারি বয়টি। প্রায় কুড়ি দিন ধরে জ্বর সহ করোনার একাধিক উপসর্গ দেখা মিলেছিল তার শরীরে আর এরকম এক অসুস্থ অবস্খাতেই গত 12 এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে পিজ্জা ডেলিভারি করেছে সেই ডেলিভারি বয়।পরবর্তীকালে আরো অবস্থা খারাপ হলে যখন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং নমুনা পরীক্ষা করা হয়, তারপরে রিপোর্ট আসার পরেই জানতে পারা যায় সেই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত।

এরপরই সংক্রমনের আতঙ্ক একধাক্কায় কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে কারণ প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল সংক্রমিত অবস্থায় কর্মসূত্রে একাধিক মানুষের সংস্পর্শে এসেছেন তিনি।সেই কারণেই তার রিপোর্ট পজিটিভ হওয়ার পরই শেষ কয়েক দিনে তিনি তাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন এরকম 72 টি পরিবারকে ইতিমধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।এর পাশাপাশি এই ডেলিভারি বয়ের সহকর্মী আরো 17 জনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

এরকম এক ঘটনার পরেই জোমাটো ইন্ডিয়া তরফ থেকে টুইটার হ্যান্ডেল এক বিবৃতি জারি করা হয় যেখানে তারা জানান অনলাইন অর্ডারের পরও বেশকিছু ডেলিভারি রেস্তরাঁর কর্মীরাও করে থাকেন। তাই এই ডেলিভারি বয় যখন কাজে যুক্ত ছিলেন তখন তিনি আক্রান্ত হয়েছিলেন কিনা তা এখনো নিশ্চিত নয়। আর এরকম এক ঘটনা পর থেকে সংস্থার তরফ থেকে কর্মী ও ডেলিভারি বয়দের আরো সুরক্ষিত ভাবে কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সেই সঙ্গে জোমাটো তরফেও সকল সুরক্ষার দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।