তৃণমূল দলে বড় ধাক্কা! দল ছেড়ে এবার বিজেপিতে যোগদান করলেন তৃণমূলের এই বিশিষ্ট সমাজসেবী।

আগত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক মহল এখন তুঙ্গে। প্রায় দিনই শুনতে পাওয়া যায় এক দলনেতা বা পঞ্চায়েত প্রধান পদ ছেড়ে অন্য পার্টিতে যোগদান করেছেন। ঠিক সেরকমই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের হাত ধরে গতকাল রাজ্য দপ্তরে এসে বিজেপিতে যোগ দিলেন বীজপুরের নেতা সুবোধ অধিকারী। আপনাদের বলে রাখি, এই সুবোধ অধিকারী বিজপুরের কাঁচড়াপাড়ায় এলাকার একজন বিশিষ্ট সমাজসেবী হিসাবে পরিচিত এক গন্যমান্য ব্যক্তি। এর আগে মুকুল রায় যখন তৃণমূলে ছিলেন তখন সুবোধ অধিকারী ছিলেন তার ছায়া সঙ্গী। গতকাল তিনি বিজেপি রাজ্য দপ্তরে এসে বিজেপিতে যোগদান দিলেন এবং বললেন তিনি তার পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে এসেছেন।

এই সুবোধ অধিকারী বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক তথা মুকুল রায় এর ছেলে শুভ্রাংশু রায়ের বিরোধী গোষ্ঠি হিসাবে পরিচিত। আর বেশ কিছুদিন আগে থেকে তিনি উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। বীজপুর এলাকায় তিনি বহু সমাজসেবামূলক কাজ করেছেন তাই তিনি সবার মুখে পরিচিত একজন নামকরা ব্যক্তি।নিজের কাজে তাকে দেশ বিদেশে থাকতে হয় তবে গতবারের দুর্গাপূজায় তিনি ফের প্রকাশ্যে আসেন। তাকে যখন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসার কারণ জিজ্ঞাসা করা হয় তিনি তখন বলেন আমি আমার পুরনো পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে এসেছি।এছাড়াও তিনি তৃণমূলের একজন নেতা হিসাবে আত্মপ্রকাশ দিতে অস্বীকার করেন তিনি বলেন আমি একজন সমাজসেবী তাই আমাকে সমাজসেবীই থাকতে দিন এবং সমাজের কাজ করতে যারা প্রশাসনিক পদে থাকেন তাদের নিয়ে আমাকে চলতে হয় তাই আমাকে তাদের সাথে মিল রাখতে হয়েছিল।

এছাড়া সুবোধ অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেয়ার পর হালিশহর,বীজপুর, কাঁচরাপাড়ায় বিজেপি সংগঠন আরো বাড়বে যার দরুন বিজেপির আগামী লোকসভা নির্বাচনে ভালো ফল হিসাবে আত্মপ্রকাশ করবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহলে বিশেষজ্ঞরা। তবে সুবোধ অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়া কতখানি লাভ দায়ক তা আগত নির্বাচনের ফলাফলের মাধ্যমে জানতে পারা যাবে। এ ব্যাপারে আপনাদের কি মতামত তা আমাদেরকে অবশ্যই জানান। আরো এরকম নতুন নতুন খবর আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পোর্টালটিতে।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close