এক সময় ছিল যখন অক্ষয় খান্না কারিশমা কাপুর কে মন প্রাণ দিয়ে ভালবাসতেন, শুধুমাত্র এই কারণের জন্য আটকে যায় বিবাহ

গতকাল অর্থাৎ ২৯ মার্চ ছিল বলিউড অভিনেতা অক্ষয় খান্নার জন্মদিন। এবারে তিনি ৪৬ বছরে পদার্পন করলেন। ১৯৯৭ সালে ‘হিমালয় পুত্র’ ছবির মধ্যে দিয়েই তাঁর বলিউডে অভিষেক ঘটে৷ প্রয়াত অভিনেতা বিনোদ খান্নার ছেলে এই অক্ষয় খান্না। ভালো নায়কের অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি খলনায়কের চরিত্রে বেশ পারদর্শী। আজও বলিউডে করিশমার সঙ্গে তাঁর বিয়ের খবর নিয়ে কিছু গুঞ্জন শোনা যায়। আজ এই অভিনেতার জীবনের কিছু খুঁটিনাটি ঘটনার দিকে আলোকপাত করবো।

অক্ষয় খান্না কারিশমা কাপুর

সীমান্ত, হিমালয় পুত্রের ছবির পর অক্ষয় খান্না অভিনীত অপর ছবি ‘তাল’ তৎকালীন সময়ে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে। এই ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৯ সালে। এই ছবিতে অভিনেত্রী ঐশ্বর্য রাইয়ের সাথে অক্ষয়ের রোমান্স ধরা পড়েছিল। তারপর এই অভিনেতাকে হামরাজ’, ‘হাঙ্গামা’, ‘রেস’ এবং ‘দহাক’ এর মতো ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যায়। ‘দিল চাহতা হ্যায়’ ছবির জন্য এই অভিনেতা ফিল্মফেয়ারের সেরা সহায়ক অভিনেতার পুরষ্কারের শিরোপাটি হাতে তুলে নেন।

অভিনয় করার সুবাদে অক্ষয় খান্নার সাথে বহু নায়িকার নাম জড়িয়েছিল। কিন্তু তিনি একমাত্র বিয়ে করতে চেয়ে ছিলেন বলিউডের তাবড় অভিনেত্রী করিশ্মা কাপুরকে। করিশ্মা কাপুরের বাবা রণধীর কাপুর তাঁর বড় মেয়ে করিশ্মার সাথে অক্ষয় খান্নার বিয়ের সম্বন্ধ পাঠিয়েছিলেন বিনোদ খান্নার বাড়িতে। কিন্তু তখন করিশ্মার সাথে এই অভিনেতার বিয়ের সম্বন্ধে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন করিশ্মার মা ববিতা কাপুর।

করিশ্মার ক্যারিয়ার জগত তখন মাঝপথে। তাই ওই সময় তাঁর মা মেয়ের বিয়ে দিতে চাননি। নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে এই অভিনেতা একবার বলেছিলেন, ‘আমি বাচ্চাদের পছন্দ করি না, তাই আজ অবধি আমি বিয়ে করি না এবং আমি কখনই বিয়ে করতে চাই না। আমি একা ভাল। আমি কিছু সময়ের জন্য একটি সম্পর্কে থাকতে পারি তবে আমি সেই সম্পর্কটি দীর্ঘদিন চালাতে পারি না ”।

করিশ্মার সাথে বিয়ে না হওয়ার জন্য এই অভিনেতা আজও চিরকুমার রয়ে গেছেন। ২০১৭ সালে বিনোদ খান্না মারা যাওয়ার পর তাঁর ছেলে অক্ষয় খান্না একা হয়ে পড়েছেন। বলিউডের ভালো অভিনেতাদের তালিকায় এই অক্ষয় খান্নার নামটি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।