স্বাধীনতার পর এই প্রথম ,এবার থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে পারবে নিজস্ব মাতৃভাষায়

গ্রামের দিকে অনেক গরিব ঘরের ছেলেমেয়েরা স্বপ্ন দেখেন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করবেন। প্রাথমিক শিক্ষা বাংলা বা অন্যান্য মাতৃভাষায় পড়াশোনা করে আসা ছেলেমেয়েরা অনেকেই ইংরেজিতে কথা বলা বা ইংরেজিতে পরীক্ষা দেওয়া সম্ভব হয়না। বিশেষত প্রযুক্তিবিদ্যার জটিল জিনিস গুলি বুঝতে ও লিখতে যথেষ্ট অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় গ্রামের সেই মেধাবী ছেলে মেয়েদের। এবার সেই সকল ছেলেমেয়েদের সমস্যার কথা মাথায় রেখে বড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ গুলি।

ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্যার কথা মাথায় রেখে প্রায় ১৪ টি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ জানালো এরপর থেকে আর শুধুমাত্র ইংরাজীতে নয় অন্যান্য ১৩ টি আঞ্চলিক ভাষাতে ও ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ানো শুরু হবে। সম্প্রতি এমনই সিদ্ধান্ত নাকি নেওয়া হয়েছে অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন এর পক্ষ থেকে। কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে মাতৃভাষায় প্রযুক্তিবিদ্যার পটন পাটন করা ছেলেমেয়েরা আগামী দিনে ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রতি ভয় কমবে ফলে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা বাড়বে কলেজগুলিতে।

অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে এই ১৩ টি আঞ্চলিক ভাষার তালিকার মধ্যে রয়েছে হিন্দি, মারাঠি, তামিল, তেলেগু, কান্নাড়া, গুজরাটি, মালায়ন, বাংলা, অসমীয়া, পাঞ্জাবি এবং ওড়িয়াও। এর পাশাপাশি আঞ্চলিক ভাষা গুলি রোবট বই ছাপানোর কাজ শুরু করবে সংশ্লিষ্ট কলেজ গুলি। কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন এর পদক্ষেপ কে সাধুবাদ জানিয়েছেন। এছাড়াও কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রী বলেন এই ১৪ টি কলেজ ছাড়াও অন্যান্য সমস্ত ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ গুলিকে মাতৃভাষায় উচ্চ শিক্ষা দানের জন্য এগিয়ে আসতে হবে।

 

অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন এর এই পদক্ষেপে পঞ্চমুখ ভারতের উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু তিনি বলেন এই উদ্যোগের মাধ্যমেপশ্চিমবঙ্গ , তামিলনাড়ু , মহারাষ্ট্র এবং অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে আসা ছাত্রছাত্রীরা বাংলা, তেলেগু, মারাঠি ও তামিলে পড়াশুনা করার সুযোগ পাবেন অন্যদিকে উত্তর প্রদেশ ,রাজস্থান ,মধ্যপ্রদেশ উত্তরাখণ্ডে ছাত্রছাত্রীরা পাবেন হিন্দি তে পড়াশোনা করার সুযোগ। যার জেরে আগামী দিনে অনেক ছেলে -মেয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করার সুযোগ পাবেন, অন্তরায় হবে না ভাষা।