ভবিষ্যতের কথা ভেবে কর্মচারীদের পেনশন ও অবসরের বয়স নিয়ে কেন্দ্র সরকার আনতে চলেছে বড় পরিবর্তন

কেন্দ্র সরকার থেকে তাদের কর্মীদের জন্য আনা হচ্ছে সুখবর। আর এই সুখবর অবিলম্বে জনসমক্ষে আনতে চলেছে কেন্দ্র সরকার। এই ঘোষণা করা হবে বিশেষত কেন্দ্র সরকারের কর্মচারীদের অবসরের বয়স ও পেনশনের পরিমাণ বাড়ানোর কথা ভেবে। ইতিমধ্যে কর্মীদের সম্পর্কিত এই প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে ইউনিভার্সাল পেনশন সিস্টেম-এ প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কমিটিতে। আর এই প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কমিটি বলেছেন, দেশে অবসরের বয়স বাড়ানোর পাশাপাশি সার্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা চালু করতে হবে।

অর্থাৎ অবসরপ্রাপ্ত হবার পর প্রবীনদের কিছু নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ হাতে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। আর এই প্রসঙ্গে কমিটির রিপোর্ট পেশ করেছেন তাতে উল্লেখ আছে যে, এই পরামর্শের অধীনে কর্মীদের প্রতি মাসে ন্যূনতম ২০০০ টাকা পেনশন দেওয়া উচিত।আর দেশের প্রবীণ নাগরিকদের ভবিষ্যতে সুরক্ষার জন্য আরো ভালো ব্যবস্থা সুপারিশ হিসেবে উপদেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কমিটি।

এই প্রতিবেদনে ৫০ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের দক্ষতা উন্নয়নের কথা বলা হয়েছে এর ফলে সামাজিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার ওপর চাপ কমতে পারে তা আশা করা হচ্ছে।এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের উচিত এমন নীতি প্রয়োগ করা যেখানে কার্যকারিতা দক্ষতা উন্নয়ন করা যায়।এই প্রচেষ্টার মধ্যে অসংগঠিত ক্ষেত্রে বসবাসকারী, প্রত্যন্ত অঞ্চল, উদ্বাস্তু, অভিবাসীদেরও অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। যাদের প্রশিক্ষণ পাওয়ার উপায় নেই, তবে তাদের অবশ্যই প্রশিক্ষণ দেওয়া উচিত ।

বিশ্ব জনসংখ্যা প্রসপেক্টাস ২০১৯ অনুসারে, ২০৫০ পর্যন্ত ভারতে প্রায় ৩২ কোটি প্রবীণ নাগরিক থাকবে। অর্থাৎ, দেশের জনসংখ্যার প্রায় ১৯.৫ শতাংশ অবসরপ্রাপ্তদের ক্যাটাগরিতে যাবে। ২০১৯ সালে, ভারতের জনসংখ্যার প্রায় ১০ শতাংশ বা ১৪০ মিলিয়ন মানুষ প্রবীণ নাগরিকদের বিভাগে রয়েছে। এর ফলে প্রবীণ নাগরিকদের সামগ্রিক উন্নয়নের সাথে সাথে আর্থিক উন্নয়ন সম্ভব।